ফালাকাটা উপনির্বাচনকে সামনে রেখে তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলের জেলা কমিটি গঠন

271

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা: সংখ্যালঘু ভোটের দিকে বিজেপি বিশেষ নজর দেওয়ায় এবার তৃণমূল কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেলও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সূত্রের খবর, নয় বছর থেকে ক্ষমতায় থাকলেও এখনও তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার সংখ্যালঘু সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি গঠিত হয়নি। দু’বছর থেকে ফালাকাটার আব্দুল মান্নান দলের সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। এবার বিজেপির তৎপরতায় ফালাকাটা উপনির্বাচনকে টার্গেট করে সোমবার কর্মীসভার মাধ্যমে তৃণমূল কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেলের জেলা কমিটি গঠিত হল।

ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রে প্রায় ১৯ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে। শালকুমার, ধনীরামপুর-১, ধনীরামপুর-২, ফালাকাটা-১, ফালাকাটা-২ ও পূর্ব কাঁঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় থাকা সংখ্যালঘু ভোটের দিকে নজর দিচ্ছে বিজেপি। সম্প্রতি বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চার রাজ্য ও জেলা স্তরের নেতারা গোপন বৈঠক করে গোটা জেলার প্রায় ২০ হাজার সংখ্যালঘু ভোটকে টার্গেট করে ময়দানে নামার পরিকল্পনা নিয়েছে। তাই তড়িঘড়ি তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এতদিন সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি না থাকায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছিল।

- Advertisement -

এজন্য এদিন ফালাকাটায় জেলা কমিটি ঘোষণা করে উপনির্বাচনের জন্য কর্মীসভা করে তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেল। সেখানে জেলার অন্যান্য ব্লকের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। জেলা কমিটিতে এদিন ২৬ জনের নাম ঘোষণা করা হয়। তার মধ্যে মহিরুদ্দিন আহমেদ ও আব্দুল কাদেরকে করা হয়েছে জেলা সহ সভাপতি। সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন আলতাফ হোসেন। চারজনকে সম্পাদক করা হয়েছে। সংগঠনের জেলা সভাপতি আব্দুল মান্নান বলেন, এরপরও প্রয়োজনে জেলা কমিটির পদাধিকারির ক্ষেত্রে সংযোজন বা বিয়োজন করা হবে। আপাতত উপনির্বাচনের জন্য জোরকদমে ঝাপিয়ে পড়তেই এদিন কমিটি ঘোষণা করা হল।

তবে বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চার দাবি, সংখ্যালঘু ভোট ব্যাংক এখন বিজেপির দিকেই ঝুঁকেছে। সংগঠনের জেলা সভাপতি শাহাজাহান আলি বলেন, ফালাকাটা উপনির্বাচনে বিজেপিই জিতবে। তৃণমূলের ভাঁওতা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ বুঝে গিয়েছে। এতদিন সংখ্যালঘু ভোট ব্যাংককে ব্যবহার করেছে তৃণমূল। এখন আর পারবে না। ফালাকাটায় আমাদের দলের প্রচুর সংখ্যালঘু সমর্থক আছেন। সাংগঠনিকভাবে নানা কর্মসূচিও চলছে। এদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি আব্দুল মান্নান পালটা বলেন, বিজেপির নেতারা দিবাস্বপ্ন দেখছেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীই একমাত্র সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কথা ভেবে কাজ করেন। তাই ফালাকাটার ১৯ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোটব্যাংক তৃণমূলের সঙ্গেই আছে।