মহকুমার দাবি মাত্রা পাচ্ছে ফালাকাটায়

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরবঙ্গে থাকাকালীন ফালাকাটায় একটি পুরোনো দাবি নিয়ে চর্চা হচ্ছে। আলিপুরদুয়ার জেলা ঘোষণার ছবছর হয়ে গিয়েছে। কিন্তু জেলা সদর ছাড়া এখনও কোনও পৃথক মহকুমা ঘোষণা হয়নি। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকে বানারহাট পৃথক ব্লক ও আলিপুরদুয়ার জংশন এলাকাকে পুরসভায় অন্তর্ভুক্তিকরণে সায় দেওয়ায় ফালাকাটাকে কেন মহকুমা ঘোষণা করা হচ্ছে না, সে প্রশ্ন উঠেছে। ফালাকাটায় এখন আর উপনির্বাচনের সম্ভাবনা নেই। আগামী ছসাত মাসের মধ্যেই হবে বিধানসভার নির্বাচন। এই কয়েক মাসের মধ্যে ফালাকাটাকে মহকুমা ঘোষণা করলে বিধানসভা ভোটে ফায়দা নিতে পারে তৃণমূল কংগ্রেস। দলের স্থানীয় নেতারাও এমনটা মনে করছেন।

২০১৪ সালের ২৫ জুন ছটি ব্লক নিয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা গঠিত হয়। এর মধ্যে জেলার মধ্যবর্তী স্থানে থাকায় ফালাকাটার গুরুত্ব অনেক বেশি। আলাদা মহকুমার দাবিতে ফালাকাটায় বহু আন্দোলন হয়। একসময় শাসক-বিরোধী সব রাজনৈতিক দলই এই দাবিকে প্রাধান্য দেয়। মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও গণস্বাক্ষরিত স্মারকলিপি পাঠানো হয়। দুবছর আগে বিধায়ক অনিল অধিকারী জীবিত থাকাকালীন জেলা প্রশাসনিকস্তরে পৃথক মহকুমা নিয়ে বৈঠকও হয়। কিন্তু অনিলবাবুর মৃত্যুর পর বিষয়টি ধামাচাপা পড়ে যায়। যদিও এই দাবি ফালাকাটার মানুষের মধ্যে এখনও রয়েছে। পৃথক মহকুমার বিষয়টি যে ফালাকাটাবাসীর কাছে স্পর্শকাতর ইস্যু, তা ভালোভাবেই জানে বিজেপি। গত লোকসভা নির্বাচনে এখানে তৃণমূলের থেকে ভোট বেশি পাওয়ায় বিজেপির শক্তি অনেকটাই বেড়েছে। গেরুয়া শিবির আপাতত একুশের বিধানসভা ভোটকে টার্গেট করে এগোচ্ছে। এক্ষেত্রে রাজ্য সরকার ফালাকাটায় মহকুমার দাবি পূরণ না করায় কিছুটা ব্যাকফুটে রয়েছে তৃণমূল। আবার এই বিষয়টি আগামী ভোটে বিজেপির কাছে বড় ইস্যু হতে চলেছে।

- Advertisement -

১২টি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত ফালাকাটা ব্লক। এর আয়তন ৩৫৪.২৮ বর্গ কিমি। জনসংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ। পাশেই বীরপাড়া-মাদারিহাট ও আলিপুরদুয়ার-১ ব্লক। ব্রিটিশ আমলেও ফালাকাটা সাব-ডিভিশন ছিল। তাই স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে পৃথক মহকুমার দাবি অনেকটাই যুক্তিসংগত। বিজেপির জেলা সহ সভাপতি জয়ন্ত রায় বলেন, প্রতিশ্রুতি দিয়ে মহকুমা ঘোষণা না করায় রাজ্য সরকার ব্যর্থ। বিধানসভা ভোটে ফালাকাটায় এটাই হবে আমাদের বড় ইস্যু। তবে তৃণমূলের ফালাকাটা ব্লক কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুভাষ রায় বলেন, ফালাকাটায় এই নবছরে বহু উন্নয়ন হয়েছে। মহকুমার প্রস্তাবও সরকারের কাছে পাঠানো আছে। আমরাও চাই ফালাকাটা মহকুমা হোক। কারণ, ছটি ব্লকের মধ্যে ফালাকাটা একটি গুরুত্বপূর্ণ জনপদ। মহকুমা হলে এলাকা আরও উন্নত হবে। এটা কোনও ইস্যু হতে পারে না।