আমরোহা, ৯ সেপ্টেম্বরঃ পণের দাবিতে বা পাত্রের মাতলামির জেরে বিয়ে ভাঙার ঘটনা অনেক শোনা গিয়েছে। কিন্তু পাত্রী হোয়াটসঅ্যাপে বেশি সময় কাটানোর জন্য বিয়ে ভেঙে যাওয়ার ঘটনা তেমন শোনা যায় না। উত্তরপ্রদেশে আমরোহা জেলায় এক পাত্রীর বিরুদ্ধে হোয়াটসঅ্যাপে বেশি সময় কাটানোর অভিযোগ তুলে বিয়ের মঞ্চ থেকে সপরিবারে বিদায় নিল হবু বর। যদিও এই অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি জানিয়েছেন পাত্রীর বাবা। তাঁর পালটা অভিযোগ, পাত্রের পরিবার ৬৫ লক্ষ টাকা পণের দাবি জানিয়েছিল। সেটি না দিতে পারার জন্যই তারা বিয়ে ভেঙে দিয়েছে। তিনি ওই পাত্রপক্ষের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় অভিযোগও জানিয়েছেন। তবে থানা-পুলিশ করেও শেষপর্যন্ত চারহাত এক হল না।