হায়দরাবাদ, ২৭ মার্চঃ প্লেটলেট ট্রান্সফিউশন থেকে এইচআইভি রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ে এক সদ্যোজাত। অভিযোগ, হায়দরাবাদের আরোহী ব্লাড ব্যংক এবং ফার্নান্ডেজ হাসপাতালের বিরুদ্ধে। ঘটনার ক্ষটিপূরণ হিসেবে ৬ কোটি টাকার জরিমানা দাবি করেছে শিশুর পরিবার।

শিশুর বাবার অভিযোগ, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে দু’দিনের শিশুটির অস্ত্রপাচার করাতে হয়। অ্যানাল অরিফাইস ছোটো থাকার কারণে শিশুটি স্বাভাবিকভাবে মলত্যাগ করতে পারছিল না। এর জন্য তার সার্জিকাল কলোস্টমি কারতে হয়। অস্ত্রপচার চলাকালীন সদ্যোজাতর পরিবারকে জানানো হয়, শরীর থেকে অনেক রক্ত বেরিয়ে যাওয়ার কারণে তাকে দ্রুত রক্ত দিতে হবে। এরপর ওই ব্লাড ব্যংক থেকে রক্ত নিয়ে শিশুর শরীরে দেওয়া হয়।

২০১৭ সালের মার্চ মাসে জানা যায় শিশুটি এইচআইভি রোগে আক্রান্ত। অভিযুক্ত হাসপাতাল শিশুর চিকিত্সা করতে অস্বীকার করে। তবে হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের কাছে কোনও নোটিস এসে পৌঁছায়নি। জানা গিয়েছে, হাসপাতাল ও ব্লাড ব্যাংকের উদ্দেশ্যে নোটিস জারি করেছে কমিশন।