ময়নাগুড়ি, ৮ জুনঃ পারিবারিক বিবাদের জেরে ভাই ও ভাস্তাকে মারধরের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল ময়নাগুড়ি ব্লকের চুড়াভান্ডার গ্রাম পঞ্চায়েতের ভাঙ্গামালি এলাকায়। জানা গিয়েছে, পুকুরের অধিকার ও পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সুবিনয় বর্মন এবং বিকাশ বর্মন, দুই কাকাতো-জ্যাঠতুতো ভাইয়ের মধ্যে বিবাদ সৃষ্টি হয়। বিবাদের জেরে বিকাশ বর্মন তাঁর ছেলেদেরকে নিয়ে সুবিনয় বর্মনকে মারধর করে বলে অভিযোগ। জখম অবস্থায় তাঁকে ময়নাগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। পরে সুবিনয় বর্মনের ছেলে অরিজিৎ বর্মনকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। অরিজিৎ বর্মনকেও প্রথমে ময়নাগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় পরে সেখান থেকে তাঁকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। এই বিষয়ে সুবিনয় বর্মনের স্ত্রী ভবানী বর্মন বলেন, ‘আমাদের মধ্যে পুকুরের অধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কোর্টে কেস চলছে। এই অবস্থায় আমার ভাসুর আজ সকালে পুকুরে মাছ ধরতে আসলে আমার স্বামী সেখানে বাধা দেয় বলে তাঁকে প্রথমে মারধর করা হয়। পরে আমার ছেলেকেও মারধর করা হয়।’ বিকাশ বর্মনের ছেলে প্রবীর বর্মন বলেন, ‘আমার বাবা পুকুর পাড়ে প্রাতঃভ্রমণে গিয়েছিলেন। সেখানে আমার কাকা সুবিনয় বর্মন বাবাকে মারধর করে। পরে তাঁর ছেলে অরিজিৎ বর্মন অস্ত্র নিয়ে আমাদের বাড়িতে মারার জন্য আসে। সেখানে আমাদের সঙ্গে তার ধস্তাধস্তি হয়।’ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ময়নাগুড়ি থানার পুলিশ।