বাবা-মা সহ চারজনকে খুন! দাদার অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার ভাই

215
ফাইল ছবি।

কালিয়াচক: বাবা, মা, ঠাকুমা এবং বোনকে খুনের অভিযোগ উঠল দ্বাদ্বশ শ্রেণির ছাত্র আসিফ মেহবুবের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, পরিবারের চার সদস্যকে খুন করেই খান্ত হয়নি ওই কিশোর, তথ্য প্রমাণ লোপাটের চেষ্টায় খুনের পর মৃতদেহগুলি বাড়িতেই মাটি চাপা দিয়ে রেখেছিল। এতকিছুর পরেও বহাল তবিয়তে সেই বাড়িতেই ছিল ওই কিশোর। ঘটনার পর কেটে গিয়েছে পাঁচ মাস। এরপর দাদার অভিযোগের ভিত্তিতে আসিফকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জানা গিয়েছে, জেরায় ধৃত ওই কিশোর খুনের ঘটনা স্বীকার করেছে। রোমহর্ষক এই ঘটনা মালদা জেলার কালিয়াচকের।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতরা জাওয়াদ আলি (৫২), ইরা বিবি(৪২), আরিফা খাতুন (১৭) এবং আলেকজান বেওয়া (৭০)। জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ফেব্রুয়ারি মাসের ২৮ তারিখের। অভিযোগ, জাওয়াদ আলীর ছোট ছেলে আসিফ মেহবুব সকলের হাত-পা বেঁধে চৌবাচ্চায় ফেলে প্রাণে মারে। এরপর একে একে মৃতদেহগুলি বাড়ির এককোনে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। যদিও ঘটনাক্রমে প্রাণে বেঁচে যায় জাওয়াদ আলি বড় ছেলে আরিফ মোহাম্মদ ওরফে রাহুল। যদিও ভাইয়ের তরফে পাওয়া হুমকির জেরে দীর্ঘ সময় মুখ খুলতে পারেনি সে। যদিও শেষ অবধি গতকাল রাতে স্থানীয় থানায় গিয়ে সম্পূর্ণ বিষয়টি জানায় সে। ঘটনার বিবরণ শুনে শিউরে ওঠেন পুলিশ কর্তারা। এরপরেই আসিফ মেহেবুবকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

- Advertisement -