পুলিশের হস্তক্ষেপে বাড়ি ফিরলেন খুনে অভিযুক্তদের পরিবারের সদস্যরা

78

রায়গঞ্জ:  গত বছর ৬ অক্টোবর  রায়গঞ্জ ব্লকের রামপুর অঞ্চলের কাজিডাঙ্গিতে খুন হন হুসেন আলি নামে এক ব্যক্তি। খুনের ঘটনায় দুই পরিবারের একজন মহিলা সহ মোট ৯ জনের নামে অভিযোগ জমা পড়েছিল রায়গঞ্জ থানায়। এ পর্যন্ত ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। একজন জামিনে ছাড়া পেলেও ২ জন এখনও হেপাজতে। ৬ জন পলাতক। জামিনে মুক্ত মহিলা সহ দুই পরিবারের সদস্যরা আজ গ্রামে ঢুকতে গেলেই বাধা দেয় গ্রামবাসীরা। বাকি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত তাদের পরিবারের সদস্যদের  গ্রামে থাকতে দেওয়া হবে না। এমন দাবিতে সেই সময় থেকেই আন্দোলন করছে গ্রামবাসীরা। আন্দোলনের চাপে পরিবারের সদস্যরা অন্যত্র আশ্রয় নেন। আজ পুলিশ ও স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের সহযোগিতায় অভিযুক্তদের পরিবারগুলি গ্রামে ঢুকতে  গেলে গ্রামবাসীদের প্রবল বাধার মুখে পড়ে। যদিও পুলিশের দাবি তাদের বাড়িতে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। গ্রামবাসী ইনাবুল হকের দাবি,পুলিশ ও তৃণমূল নেতারা আজ আসামীদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে গেলে প্রবল বাধার মুখে পড়ে। খুনের সাত মাস পরেও সব আসামীরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় ক্ষোভ গ্রামবাসীদের। এদিন পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ পিকেট বসে। রায়গঞ্জ থানার আই সি সুরজ থাপা জানান,৩ অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়েছিল। বাকিরা পলাতক। আজ তাদের পরিবারদের গ্রামে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে বিষয়টি  নজরে রেখেছেন তারা।