বাজি ফাটিয়ে অভিনব শবযাত্রা গাজোলে

363

গাজোল: এক অভিনব শবযাত্রার সাক্ষী হয়ে থাকল গাজোল গরু হাট এলাকার মানুষেরা। বাজি পটকা ফাটিয়ে ব্যান্ড বাজিয়ে মহা উল্লাসে এদিন মৃত বৃদ্ধার দেহ শ্মশানে নিয়ে গেলেন পুত্র, নাতি সহ পাড়া-প্রতিবেশীরা। পরে গাজোল (আমপুকুরিয়া) মহাশ্মশানে ঐ বৃদ্ধার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

এদিন সকালে বাজি পটকার আওয়াজ এবং তার সাথে ব্যান্ড পার্টির শব্দ শুনে প্রথমে হকচকিয়ে যান পথচলতি মানুষেরা। একটু বাদে দেখা যায় কাঁধে মৃতদেহ নিয়ে মহা উল্লাসে শ্মশানের দিকে এগিয়ে চলেছেন বেশ কিছু মানুষ। পেছনের দিকে অবশ্য খোল করতাল নিয়ে চলছিল নাম সংকীর্তন।

- Advertisement -

মৃত বৃদ্ধার নাতি পুষ্পেন্দু দাস বলেন, ‘আমার ঠাকুমার নাম কালি রাণী দাস। বয়স প্রায় ৯০ বছর। বেশ কিছুদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন তিনি। অবশেষে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ মারা যান ঠাকুমা। যার ফলে একদিকে তিনি যেমন কষ্ট থেকে মুক্তি পেলেন তেমনি আমরাও দুশ্চিন্তা থেকে রেহাই পেলাম। তাই এদিন আমরা আনন্দ উল্লাসের মধ্যে দিয়ে ঠাকুমার শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে চলেছি।’

ছেলে অসীম কুমার দাস বলেন, ‘বেশ কয়েক মাস ধরেই অসুখের কারণে মা কষ্ট ভোগ করছিলেন। সেই কষ্টের হাত থেকে গতকাল রাতে মুক্তি পেয়েছেন তিনি। তাই পাড়া প্রতিবেশীদের সাথে আলাপ আলোচনা করেই ধুমধামের সঙ্গে মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে যাচ্ছি। শববাহীদের সামনে ব্যান্ডপার্টি থাকলেও তারা বাজাচ্ছিল কীর্তন এবং ভক্তিমূলক গান। নিয়ম অনুযায়ী পেছনে চলছিল খোল করতাল সহযোগে নাম গান। সবশেষে গাজোল আম পুকুরিয়া শ্মশানে মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন করব। তবে মায়ের পারলৌকিক ক্রিয়া কর্ম হবে সম্পূর্ণ নিয়ম এবং আচার মেনেই।’