দিল্লিতে কৃষকদের উসকানির পিছনে দীপ সিধু, অভিযোগ কৃষক সংগঠনের

196
ছবি সংগৃহীত

নয়াদিল্লি: দিল্লিতে আন্দোলনকারী কৃষকদের উসকেছিলেন পঞ্জাবি গায়ক তথা অভিনেতা দীপ সিধু। এমনই অভিযোগ তুললেন ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের প্রধান গুরনাম সিং চাদুনি। একই অভিযোগে সরব হয়েছেন স্বরাজ ইন্ডিয়ার নেতা যোগেন্দ্র যাদবও।

মঙ্গলবার লালকেল্লার ব্যারিকেড ভেঙে ভিতরে ঢুকে পড়েন আন্দোলনকারী কৃষকরা। এমনকি, লালকেল্লার গম্বুজে উঠে ধর্মীয় পতাকা তুলে দেওয়া হয়। এপ্রসঙ্গে গুরনাম সিংয়ের অভিযোগ, ‘কৃষকদের ভুল পথে চালিত করেছেন দীপ সিধু। তাঁরই নেতৃত্বে কৃষকরা লালকেল্লায় অভিযান চালায়।’

- Advertisement -

এদিকে, স্বরাজ ইন্ডিয়ার নেতা যোগেন্দ্র যাদব বলেন, ‘এই ঘটনার জন্য দুই ব্যক্তি দায়ী। তাঁদের মধ্যে দীপ সিধু একজন। হিংসার সময় লালকেল্লায় ছিলেন দীপ। এই মিছিলের শুরু থেকেই তার বিরোধিতা করা হয়েছিল।’ তিনি বলেন, ‘লালকেল্লায় যা ঘটেছে তার জন্য লজ্জায় আমার মাথা হেট হয়ে যাচ্ছে। সেখানে যাঁরা ছিলেন তাঁদের সঙ্গে আন্দোলনের কোনও সম্পর্ক নেই।’ তবে এই ঘটনার দায় যে তিনি এড়াতে পারেন না সে কথাও স্বীকার করেছেন যোগেন্দ্র।

অন্যদিকে, কংগ্রেসের সাংসদ রবনীত সিং বিট্টুর দাবি, ‘লালকেল্লায় গোটা ঘটনার পিছনে ইন্ধন রয়েছে দীপ সিধুর। লালকেল্লায় তিনিই পতাকা উড়িয়েছেন। দীপ একজন নিষিদ্ধ সন্ত্রাসবাদী সংগঠন শিখস ফর জাস্টিস-এর সদস্য।’

মঙ্গলবার কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় দিল্লি। পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশকে লাঠিচার্জ, কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করতে হয়। ব্যারিকেড ভাঙার পাশাপাশি সরকারি বাস এবং গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় আন্দোলনকারীরা। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৮৬ জন পুলিশকর্মী। দিল্লিতে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠকে বসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। পরিস্থিতি সামলাতে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।