মেয়েকে লাগাতার ধর্ষণে বাবার ৫ বছরের কারাদণ্ড

3150

অনলাইন ডেস্ক: নাবালিকাকে মেয়েকে লাগাতার ধর্ষণের ঘটনায় বাবার পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল আদালত। শনিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুক জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক এই সাজা শোনান। পাঁচ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। অনাদায়ে জেল হেপাজতের মেয়াদ আরও বাড়তে পারে।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়ার ভবানীপুর থানার বাসিন্দা ওই ব্যক্তি নিজের ১২ বছরের মেয়ের ওপর লাগাতার যৌন নির্যাতন চালাতেন। কিছুদিন মুখ বুজে সহ্য করার পর মেয়েটি গোটা বিষয় তার মাকে জানায়। ২০১৬ সালে ওই নাবালিকার মা হলদিয়া মহিলা থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন৷

- Advertisement -

অভিযোগ পেয়েই তৎপর হয়ে ওঠে পুলিশ। ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে মামলা নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ। পাশাপাশি পকসো আইনেও মামলা রুজু করা হয়। এরপর দীর্ঘ কয়েক বছর যাবত তমলুক জেলা ও দায়রা আদালতে এই মামলার বিচার চলে।

সরকারি আইনজীবী সুতপা সামন্ত জানান, দীর্ঘ ৪ বছর মামলা চলার পর আদালত অভিযুক্ত ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করেছে। বিচারক নাবালিকাকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন৷ পাশাপাশি তার বাবার পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।