চাষের জমিতে ক্ষতির আশঙ্কা, পাকা সেতুর কাজ আটকালেন জমির মালিক

212

হেলাপাকড়ি: চাষের জমির ক্ষতির আশঙ্কায় পাকা সেতুর কাজ আটকে দিলেন জমির মালিকরা। বার্নিশ গ্রাম পঞ্চায়েতের সুলটুর বাড়ি, মনেয়ার বাড়ি, ডোরারবাড়ি এলাকার বাসিন্দাদের যাতায়াতের মূল রাস্তায় একটি খালের উপর পাকা সেতু তৈরির কাছ শুরু করে গ্রাম পঞ্চায়েত। সোমবার সেই কাজ আটকে দিলেন জমির মালিক সাহেরা বানু ও মোনাজির রহমান।

অভিযোগ, ২০ মিটার বাঁশের সাঁকোর পরিবর্তে ১২ মিটার পাকা সেতু তৈরি করা হচ্ছে। বাকি অংশ মাটি দিয়ে ভরাট করা হবে। কিন্তু দু’দিকে সমান ভাগ না করে এক প্রান্তেই ৮ মিটার বাদ দিয়ে সেতুটি তৈরি করা হচ্ছে। এতে জলস্রোতের গতিপথ অনেকটাই পরিবর্তন হবে। ফলে এক প্রান্তের আবাদি জমির ক্ষতি কমলেও অপরপ্রান্তের জমিতে ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই সংশ্লিষ্ট জমির মালিক সেতুর কাজ আটকে দিয়েছেন।

- Advertisement -

এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণে ৩২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পাকা সেতু তৈরির পরিকল্পনা গ্রহণ করে বার্নিশ গ্রাম পঞ্চায়েত। গত ২২ জানুয়ারি সেই কাজের শিলান্যাস করেন পঞ্চায়েত প্রধান কল্যাণী তরফদার। জমির মালিক সাহেরা বানু বলেন, ‘সমস্যা সুরাহার জন্য পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে লিখিতভাবে আর্জিও জানিয়েছি।’ বার্নিশ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান কল্যাণী তরফদারকে ফোনে যোগাযোগ করা যায়নি।