লিও মেসির রেকর্ড ভাঙলেন তোরেস

নিউক্যাসেল : সিনিয়র কেরিয়ারে প্রথম হ্যাটট্রিক। তাতেই লিওনেল মেসির রেকর্ড ভাঙলেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির ফেরান তোরেস। তাঁর পারফরমেন্সের জোরে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে পিছিয়ে পরেও ৪-৩ গোলে জিতে ফিরছে সিটি। তাদের অন্য গোল জোয়াও ক্যান্সেলোর।

পেপ গুয়ার্দিওলার ছাত্র হিসেবে সবচেয়ে কম বয়সে লিগ ম্যাচে হ্যাটট্রিক করার নজির গড়লেন এই স্প্যানিশ উইঙ্গার। ২০১০ সালে গুয়ার্দিওলার অধীনে প্রথম হ্যাটট্রিক করেছিলেন মেসি। লা লিগায় তেনেরিফের বিরুদ্ধে ওই ম্যাচ খেলার সময় আর্জেন্টাইন মহাতারকার বয়স ছিল ২২ বছর ২০০ দিন। তোরেসের সেই কাজ করতে ১২৫ দিন কম লাগল। নতুন শিষ্যের এমন ফলে দারুণ খুশি পেপ। ম্যাচ শেষে বললেন, প্রিমিয়ার লিগে প্রথম মরশুম হলেও ওর গোল সংখ্যা নজর কাড়ে। বয়স কম। তবে গোলের সামনে ও বেশ কার্যকর। ওকে উইঙ্গার হিসেবে সই করানো হলেও স্ট্রাইকার হিসেবেও খেলানো যায়। পরবর্তীতে আমাদের এই বিষয়ে নজর দিতে হবে।

- Advertisement -

আগেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাওয়ায় এদিন কয়েকজনকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন পেপ। তবে দুবার পিছিয়ে পরেও জিততে কোনও সমস্যা হয়নি তাদের। সৌজনে স্প্যানিশ উইঙ্গারের হ্যাটট্রিক। মরশুমের শুরুতে যখন ভ্যালেন্সিয়া থেকে তোরেসকে সই করায় সিটি, তখন অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছিল। কারণ মাত্র ২০.৮ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে লা লিগার নজরকাড়া এই উইঙ্গারকে দলে নেয় ইংল্যান্ডের ক্লাবটি। ভ্যালেন্সিয়ার আভ্যন্তরিণ সমস্যায় সিটির লাভ হল বলে মন্তব্য করেছিলেন ফুটবল পণ্ডিতরা। তাঁদের কথা যে সত্যি তা প্রমাণ করেছেন তোরেস। সীমিত সুযোগের মধ্যেও প্রিমিয়ার লিগে সাত গোল করেছেন তিনি, যা তিন মরশুমে লা লিগায় করা মোট গোলের থেকেও বেশি।