হাউস ফর অল প্রকল্পের ফাইল উধাও আলিপুরদুয়ার পুরসভা থেকে

335

আলিপুরদুয়ার, ২০ জুলাই : আলিপুরদুয়ার পুরসভার বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ ফাইল নিখোঁজ হয়ে গিয়েছে। পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, মিসিং ফাইলের অধিকাংশই হাউস ফর অল প্রকল্পের। ফাইল পাচারের ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যে পুরসভার তিন জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারি ও একজন চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীকে শো-কজ করা হয়েছে।  বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর অভিযোগ, সম্প্রতি আলিপুরদুয়ার পুরসভার তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত বিদায়ী পুরবোর্ডের সময় হাউস ফর অল প্রকল্প থেকে শুরু করে নানা কাজে যে দুর্নীতি ও বেনিয়ম হয়েছে তা ধামাচাপা দিতেই গুরুত্বপূর্ণ ফাইল পাচার করা হয়েছে। পুরসভার প্রশাসক তথা মহকুমাশাসক কৃষ্ণাভ ঘোষ ফাইল সংক্রান্ত ঘটনায় যে চারজন পুরকর্মচারিকে শোকজ করেছেন তা স্বীকার করে নিয়েছেন। মহুকুমাশাসক বলেন, ‘গোটা বিষয়টি পুরসভার অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। ঘটনার তদন্ত করে দেখা হবে।’

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় এক সপ্তাহ আগে পুরসভার দোতলার (সেকেন্ড ফ্লোর) কনফারেন্স রুম থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফাইল নিখোঁজ হয়ে যায়। ওই রুমে মূলত সিটি মিশন ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত ফাইলগুলি রাখা ছিল। পুর এলাকায় হাউস ফর অল প্রকল্পের যাবতীয় ফাইলও ওই রুমে ছিল। গত সপ্তাহে বিকেলের দিকে যখন পুরসভার অধিকাংশ কর্মী চলে গিয়েছেন সেই সময় কয়েকজন পুরকর্মী বিনা অনুমতিতে ওই কনফারেন্স রুমের তালা খুলে কিছু ফাইল নিয়ে চলে যান। বিষয়টি জানাজানি হতেই হইচই পড়ে যায় পুরসভার অন্দরে। পরে সিসি টিভির ফুটেজ দেখে চারজন পুরকর্মচারীকে চিহ্নিত করা হয়। ঘটনায় দ্রুত হস্তক্ষেপ করেন মহকুমাশাসক। তিনি অভিযুক্ত চারজন কর্মচারীকে শোকজ করেন।  হাউস ফর অল প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক জয়দীপ সেনগুপ্ত বলেন,‘আমি আমার বক্তব্য পুরসভার প্রশাসককে লিখিতভাবে জানিয়েছি। তবে যাদের শো কজ করা হয়েছে তারা সকলেই আমার বিভাগে নিযুক্ত।’ ফাইল নিখোঁজ সংক্রান্ত ঘটনায় জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা বিগত পুরসভার চেয়ারম্যান আশিস দত্ত বলেন, ‘যদি এই ঘটনা ঘটে তা অবশ্যই নিন্দনীয়। যেটুকু শুনেছি প্রশাসনিকস্তরে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। প্রশাসনের উপর বিশ্বাস আছে। কেন, কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা প্রশাসন খতিয়ে দেখবে।’

- Advertisement -

ছবি- এই ঘর থেকেই খোয়া গিয়েছে ফাইল।