অবশেষে দাবিপূরণ! কিশানদের জাতিগত শংসাপত্র দেবে রাজ্য

109

মানিকচক: মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে লোহারদের জাতিগত শংসাপত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল মালদা জেলা প্রশাসন। অন্যদিকে কিষান জাতির জাতিগত শংসাপত্রের বিষয়টি একধাপ এগিয়েছে। কালচারাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটকে নতুন করে সার্ভে রিপোর্ট দেওয়ার জন‍্য নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছেন মালদার জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র।

জেলায় প্রায় কুড়ি হাজার লোহার সম্প্রদায় রয়েছে যারা এখনো  জাতিগত শংসাপত্র পাচ্ছেন না। এদের পূর্বপুরুষদের জাতিগত শংসাপত্র থাকলেও জেলায় এদের শংসাপত্র দেওয়া হচ্ছিল না। সম্প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মালদা সফরে এলে এ বিষয়টি তাঁর নজরে আনেন তৃণমূল নেতা দুলাল সরকার। মুখ্যমন্ত্রী বিষয়টি জেলাশাসককে দেখার নির্দেশ দেন। দুলাল সরকার দাবি করেছেন,   লোহার সম্প্রদায়ের পূর্বপুরুষদের শংসাপত্র দেখিয়ে তার উত্তরাধিকাররা শংসাপত্র পাবেন এবং আজ থেকেই এই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেল। তৃণমূলের উদ্যোগে মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে এটি সম্ভব হয়েছে।

- Advertisement -

অন্যদিকে, জেলায় প্রায় ৩ লক্ষ কিষান জাতি রয়েছে। তাঁরা দীর্ঘদিন ধরে জাতিগত শংসাপত্রের দাবি জানিয়ে আসছেন। মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরে এ ব্যাপারেও জেলাশাসককে বিষয়টি দেখার নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এব্যাপারে জেলাশাসক জানিয়েছেন, কিষান সম্প্রদায় জাতিগত শংসাপত্র পাওয়ার যোগ্য কিনা এব্যাপারে রাজ্য সরকারের তরফে কালচারাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটকে নতুন করে সার্ভে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। অর্থাৎ ভোটের মুখে লোহার সম্প্রদায় সরাসরি লাভবান হচ্ছেন। আর ভোটের মুখে লোহারদের শংসাপত্র দেওয়ার কাজ চালু করার নির্দেশ দিয়ে একপ্রকার ‘মাস্টার স্ট্রোক’ দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।