অবশেষে নিমতা কাণ্ডে খুনের মামলা রুজু করল পুলিশ

69

ব্যারাকপুর: অবশেষে বৃদ্ধার মৃত্যুর পরেই নিমতা কাণ্ডে খুনের মামলা রুজু করল পুলিশ। পাঁচজনের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করা হয় মৃতার পরিবারের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে দুষ্কৃতীদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের অধীন নিমতা থানা এলাকার বাসিন্দা শোভারানী মজুমদার। দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে সোমবার ভোরে তিনি মারা যান। এরপরেই নিমতা থানা ঘেরাও করে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু এবং উত্তর দমদম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডাঃ অর্চনা মজুমদার। নিরপেক্ষ তদন্ত করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে পুলিশকে ৭২ ঘণ্টা সময় বেধে দেন তাঁরা।

- Advertisement -

মৃত বৃদ্ধার ছেলে গোপাল মজুমদার একজন বিজেপি কর্মী। অভিযোগ, বিজেপি করার অপরাধে এক দল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী গত ২৬ ফেব্রুয়ারি তাঁর বাড়িতে হামলা চালায়। মারধর করা হয় তাঁকে। ছেলেকে বাঁচাতে সেখানে পৌঁছেন শোভারানীদেবী। হামলাকারীরা তাকেও ছাড়েনি। ঘটনায় গুরুতর জখম হন তিনি। এরপরেই বিজেপি নেতাদের উদ্যোগে কলকাতার ইএম বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। প্রায় এক মাস চিকিৎসার পর গত শুক্রবার হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় তাঁকে। কিছুদিন বাদে বাড়িতেই তাঁর মৃত্যু হয়। শোভারানীদেবীর মৃত্যুর ঘটনা সামনে আসতেই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এরপরেই দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে শুরু হয় ক্ষোভ-বিক্ষোভ। পরে পুলিশি আশ্বাসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।