স্কুলে আর্থিক দুর্নীতি, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক

90

বর্ধমান: মিড ডে মিল ও আর্থিক অনুদানের টাকা তছরুপের অভিযোগ উঠল বর্ধমানের মিউনিসিপ্যাল বয়েজ হাই স্কুলের সেকেন্ডারি বিভাগের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। যার তদন্তে বুধবার বিদ্যালয়ে যান পূর্ব বর্ধমান জেলা শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকরা।

কিছুদিন আগে বিদ্যালয় চত্বরে থাকা একটি প্রাচীন গাছকে হত্যা করার অভিযোগ এনেছিলেন একই বিদ্যালয়ের প্রাথমিক বিভাগের প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ পাল। এবার তিনি সেকেন্ডারি বিভাগের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরাসরি মিড-ডে মিল সহ বিদ্যালয়ের আর্থিক অনুদানের টাকা তছরুপের অভিযোগ এনেছেন। জেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে তিনি এই আর্থিক দুর্নীতির তদন্তেরও দাবি করেছেন। জেলার স্বনামধন্য বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে একের পর এক এমন অভিযোগ ওঠায় স্বভাবতই হতাশ অবিভাবক ও প্রশাসনিক মহল।

- Advertisement -

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সেকেন্ডারি বিভাগের প্রধান শিক্ষক ড. শম্ভুনাথ চক্রবর্তী। তিনি বলেন, ‘তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করার পাশাপাশি ঐতিহ্যবাহী স্কুলের গরিমা নষ্ট করার চক্রান্ত হচ্ছে। আগেও বিভিন্ন রকমের অভিযোগ তোলা হয়েছিল। সেসব অভিযোগই মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। শম্ভুনাথবাবু স্পষ্ট জানিয়েছেন, তদন্তকারী আধিকারিকদের যা বলার তিনি বলে দিয়েছেন।