হাসপাতালে কাজ দেওয়ার নামে আর্থিক প্রতারণা,অভিযোগ দায়ের থানায়

112

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ঠিকাদারের মাধ্যমে ওয়ার্ডবয় এবং ওয়ার্ডগার্ল নিয়োগের নামে বেকার ছেলে মেয়েদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা তোলার অভিযোগ উঠল দালাল চক্রের বিরুদ্ধে। শনিবার রায়গঞ্জের আশপাশের এলাকা  থেকে প্রায় ১০ জন বেকার ছেলে-মেয়ে দালালদের বিরুদ্ধে  অভিযোগ জানাতে আসেন মেডিকেল কলেজ লাগোয়া তৃণমূল রোগী পরিষেবা সহায়তা কেন্দ্রে। তাদের অভিযোগ, হাসপাতালে ওয়ার্ডবয় এবং ওয়ার্ডগার্ল কাজের জন্য তাদের থেকে লক্ষাধিক টাকা নিয়েছে দালালরা।

কোভিড পরিস্থিতিতে হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডে বেশ কয়েকজনকে ওয়ার্ডবয় বা ওয়ার্ডগার্লের কাজ না দিয়ে সাফাইয়ের কাজ দেওয়া হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতেই তাদের ছাটাই করে দেওয়া হয়েছে। কেউ কাজ করেছেন ২ মাস,আবার কেউ ১৫ দিন। অনেকে দালালকে  টাকা দিলেও কাজই পাননি। এদের মধ্যে দুই- একজন পারিশ্রমিক পেয়েছেন ৫ হাজার টাকা, আবার কাউকে দেওয়া হয়েছে ১ হাজার টাকা। কোভিড ওয়ার্ডে কাজ করার পরেও ভ্যাকসিন দেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ। এদিন প্রতারিত ছেলে মেয়েরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারা প্রতারকদের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ জানান।

- Advertisement -

তৃণমূল  হাসপাতাল রোগী পরিষেবা কেন্দ্রের আহ্বায়ক তপন নাগ জানান, বেশ কয়েকদিন ধরেই প্রতারিত ছেলে মেয়ে তাদের অফিসে আসছে। তাদের ঠিকাদারের মাধ্যমে ওয়ার্ডবয় ও ওয়ার্ডগার্লের চাকরি দেওয়ার নাম করে এক শ্রেণির দালাল লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়েছে। সর্বস্ব বিক্রি করে এই টাকা দিয়েছে তারা। এখন চাকরি না দিয়ে নানা বাহানা দেখানো হচ্ছে। যারা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত, তাদের উপযুক্ত শাস্তি ও হাসপাতাল থেকে বহিস্কারের জন্য পুলিশ  ও হাসপাতাল কতৃপক্ষকেও জানানো হবে। রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের এমএসভিপি প্রিয়ঙ্কর রায় বলেন, ‘কোভিড পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশানুযায়ী লোকের প্রয়োজন হলে আমরা ঠিকাদারকে জানাই। কয় মাসের জন্য এবং কত টাকা পারিশ্রমিক হবে তা জানানোর পর ঠিকাদার সংস্থা আমাদের লোক দেয়। হাসপাতাল কতৃপক্ষ কোনও লোক নিয়োগ করে না। তাই কারা টাকা নিয়েছে আমাদের জানা নেই,বাইরের ব্যাপার।‘