ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত, শিলিগুড়িতে অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

807

শিলিগুড়ি: বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে রবিবার শিলিগুড়ি কমিশনারেটের প্রধাননগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন রিঙ্কু চ্যাটার্জী সিং নামে এক আইনজীবী। অভিযোগ, ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি সায়নী ঘোষ নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি বিতর্কিত ছবি দিয়ে টুইট করেন। যা হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগকে আঘাত করে। দীর্ঘ কয়েক বছর সেই টুইটটি ধামাচাপা পরে থাকলেও সেটি পুনরায় খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে। সোশ্যাল মাধ্যমেও সেই টুইটটি নিয়ে ঘোর সমালোচনা চলছে।

বিষয়টি নিয়ে এদিন রাজ্য বিজেপি নেতা তথাগত রায় সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে কলকাতার রবীন্দ্র সরোবর পুলিশ স্টেশনে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদি ওই টুইটটি তাঁর অজান্তে হয়েছে বলে শনিবা টুইটে দাবি করেছেন সায়নী। নিজের টুইটে সায়নী বলেন, ‘২০১৫ সালের ওই টুইটটির বিষয়ে আমি অবগত ছিলাম না। যেই মুহূর্তে ওই টুইটটি আমার নজরে আসে তখনই সবাইকে জানিয়ে সেটি ডিলিট করে দিই। নিজের ধর্মকে আঘাত করার কোনও ইচ্ছে আমার কোনওদিন ছিল না। কিন্তু এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে যেভাবে আমাকে বিদ্বেষের সম্মুখীন হতে হচ্ছে তা দুঃখজনক।’

- Advertisement -

কয়েকদিন যাবৎ তথাগত রায়ের সঙ্গে সায়নী ঘোষের বাকযুদ্ধের ঘটনা খবরের শিরোনামে উঠে আসছে। এরই মাঝে পুরোনো টুইট নতুন করে যেন সায়নী বিরোধীদের হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দিল। এদিন অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পর রিঙ্কু চ্যাটার্জী সিং বলেন, ‘এর আগেও ধর্মীয় ভাবাবেগ নিয়ে সায়নী ঘোষ টুইট করলেও সেগুলি গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। কিন্তু এবার ধর্মীয় ভাবাবেগকে নিয়ে যেভাবে তাঁর টুইটটি সামনে এসেছে, সেটি মেনে নেওয়া যায় না। বাধ্য হয়ে আমরা প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছি। যাতে পুলিশ অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এমন কোনও কাজ করতে সাহস না পায়। তথাগতবাবু একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ঠিকই। তবে একজন মহিলা হয়ে এই টুইটের প্রতিবাদ না করে আমি থাকতে পারলাম না।’