বকেয়া দাবি করতেই মারধরের অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে

141

রায়গঞ্জ: বকেয়া মজুরি দাবি করতেই এক পরিযায়ী শ্রমিককে বাঁশ-লোহার রড দিয়ে মারধর করার অভিযোগ উঠল ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। ঘটনায় মাথা ফেটে গুরুতর জখম হয়েছেন ওই পরিযায়ী শ্রমিক ভীম রায়। বর্তমানে তিনি উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বুধবার ঘটনাটি ঘটে রায়গঞ্জের কমলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।

গত বছর লকডাউনের আগে প্যান্ডেলের কাজের সুবাদে ঠিকাদার বাবলু রায়ের অধীনে নেপালে গিয়েছিলেন কমলাবাড়ির ভীম রায় সহ প্রায় ৫০ জন শ্রমিক। অভিযোগ, মাস চারেক আগে ফিরলেও বকেয়া পাঁচ হাজার টাকা মেটাতে টালবাহানা করছেন ঠিকাদার। এই পরিস্থিতিতে এদিন ফের বকেয়া টাকার দাবি করতেই ভীম রায়কে বেধড়ক মারধর করে ঠিকাদার বাবলু রায় সহ তাঁর দলবল। অভিযোগ, বাঁশ-লোহার রড দিয়ে মারধর করার পাশাপাশি গলা টিপে খুনের চেষ্টাও করা হয়। ঘটনায় গুরুতর জখম ভীম রায়কে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও পরে সেখান থেকে তাঁকে রেফার করা হয় উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে।

- Advertisement -

জখমের স্ত্রী কাজলি রায় জানিয়েছেন, বকেয়া টাকা চাইতেই আমার স্বামীকে খুনের চেষ্টা করেন ঠিকাদার বাবলু রায় ও তাঁর সঙ্গীরা। সামগ্রিক ঘটনার প্রেক্ষিতে ঠিকাদার বাবলু রায়ের বিরুদ্ধে কর্ণজোড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন জখমের স্ত্রী। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে পালটা মারধরের অভিযোগ তুলে ধরেছেন বাবলু রায়।