হাসপাতালের অদূরেই অগ্নিকাণ্ড, আতঙ্কে দমকল কেন্দ্রের দাবিতে বিক্ষোভ

133

জঙ্গিপুর: হাসপাতালের অদূরেই অগ্নিকাণ্ড। পুড়ে ছাই একাধিক দোকান। অভিযোগ, শহরে দমকল কেন্দ্র না থাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আতঙ্ক বাড়ছে। সেক্ষেত্রে দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার দাবিতে বিক্ষোভে শামিল স্থানীয়রা। ঘটনায় শনিবার সকালে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর এলাকার দাদা ঠাকুর মোড় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভের খবর ছড়িয়ে পড়তেই ঘটনাস্থলে পৌঁছোন জঙ্গিপুরের বিধায়ক তথা রাজ্যের শ্রম দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এরপরেই বিক্ষোভ তুলে নেন স্থানীয়রা।
প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড ঘটে জঙ্গিপুর হাসপাতাল মোড় এলাকায়। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়ে ছাই হয়ে যায় একে একে ছ’টি দোকানঘর। প্রশাসন সূত্রে খবর, জঙ্গিপুর হাসপাতাল চত্বরের বাইরে পুরসভার জমি দখল করে গজিয়ে ওঠা একটি দোকানে প্রথম আগুন লাগে। মুহূর্তেই সেই আগুন ছড়িয়ে পরে আশেপাশের দোকানগুলিতে। যদিও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর নেই। তবে ঠিক কী কারণে আগুন লেগেছিল তা এখনও জানা যায়নি। সেক্ষেত্রে তদন্ত শুরু করেছে দমকল বিভাগ।
হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয়দের মধ্যে। একইসঙ্গে আতঙ্ক ছড়ায় হাসপাতালের রোগী থেকে শুরু করে কর্মচারীদের মধ্যেও। অভিযোগ, গতরাতে আনুমানিক ৯টা নাগাদ আগুন লাগার ঘটনা ঘটলেও দমকলের ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় আনুমানিক সাড়ে দশটা নাগাদ। ঘটনায় দমকল বিভাগের ভূমিকায় প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। স্থানীয়দের বক্তব্য, জঙ্গিপুর একটি মহকুমা শহর। যদিও সেখানে কোনও দমকল কেন্দ্র নেই। সেক্ষেত্রে জঙ্গিপুর মহকুমার ভরসা ধূলিয়ান শহরে অবস্থিত দমকল কেন্দ্রের ওপর। স্থানীয়দের অভিযোগ, কোনও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটলে দমকলের ইঞ্জিন পৌঁছোতে যথেষ্ট সময় লেগে যায়। ততক্ষণে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ঘরবাড়ি। সেক্ষেত্রে, নিরাপত্তার স্বার্থে স্থানীয় এলাকায় দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলা যথেষ্ট প্রয়োজন।