বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে আগুন, অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

64

বক্সিরহাট: বোমাবাজির পর এবার অগ্নিকাণ্ড বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে বক্সিরহাট থানার মহিষকুচি ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘোনাপাড়ায়। অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। এদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে এলাকায় বিক্ষোভ দেখান ও মিছিল করেন বিজেপি কর্মীরা।

ওই এলাকার বিজেপির ৩৩ নম্বর মণ্ডল সহ সভাপতি রিতা অধিকারীর বাড়িতে আগুন লাগে। রিতা অধিকারী জানান, গতকাল রাতে বোমা ফাটার মতো আওয়াজ শুনে তাঁদের ঘুম ভেঙে যায়। ঘর থেকে বেরিয়ে দেখেন রান্নাঘরে আগুন জ্বলছে। স্থানীয়রা চিৎকার শুনে সেখানে যান। পাম্পসেট চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। রিতাদেবীর অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে। রিতাদেবীর শ্বশুরের অভিযোগ, তাঁর বৌমাকে মেরে ফেলতেই তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। জানা গিয়েছে, সাতদিন আগেও রিতা অধিকারীর থাকার ঘরে বোমা ছুড়েছিল দুষ্কৃতীরা। তারপর গতকাল এই ঘটনা। সোমবার সকালে খবর পেয়ে রিতাদেবীর বাড়িতে আসেন বিজেপির তুফানগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রীক সহ সংযোজক বিমল পাল। তিনি জানান, এলাকায় তৃণমূলের নিশ্চিত পরাজয় বুঝতে পেরে একের পর এক এই ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। তিনি জানান, এর আগেও রিতাদেবীকে তৃণমূলে যোগদানের জন্য চাপ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা না করাতেই তাঁর ওপর আক্রমণের চেষ্টা করে এলাকার বিজেপি অনুরাগীদের ভয় দেখানো হচ্ছে। প্রশাসন কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলেও তাঁর অভিযোগ। বিষয়টি তারা নির্বাচন কমিশনের গোচরে আনবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

বিজেপির অভিযোগকে অস্বীকার করে তৃণমূলের মহিষকুচি ১ অঞ্চল কমিটির সহ সভাপতি এক্রামুল হক জানান, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কেউ জড়িত নন। এলাকায় বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রয়েছে। সে কারণে দলের কাছে নিজের ক্রেডিট বাড়াতে নেত্রী নিজেই এই কাজ করে তৃণমূলের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। পাশাপাশি তাঁর বক্তব্য, কোনও তৃণমূল কর্মী এইকাজ করেছে তা প্রমাণ করতে পারলে তাঁরাই শাস্তি দেবেন। বক্সিরহাট থানার ওসি অ্যান্থনী হারা জানান, কোনও লিখিত অভিযোগ জমা পড়েনি। ঘটনার তদন্ত চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।