খুব বেশি হলে হয়তো মৃত্যু হবে, টিকা নেওয়ার পর মন্তব্য ফিরহাদের

157

কলকাতা: ঠিক ২৮ দিনের মাথায় বুধবার কোভ্যাকসিন টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হল রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে। এদিন তাঁকে নাইসেড থেকে ফোন করে জানানো হয়, দ্বিতীয় দফার টিকা নেওয়ার জন্য তাঁকে আসতে হবে। সেইমতো ঠিক দুপুর ১ টায় পৌঁছে যান ফিরহাদ। তিনি জানিয়েছেন, পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম ডোজ নেওয়ার পর এপর্যন্ত তাঁর কোনও শারীরিক অসুবিধা হয়নি। এরমধ্যে নাইসেডের তরফে বারবার ফোন করে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজখবর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ফিরহাদ বলেন, ‘আমি জানি তার সম্ভাবনা নেই, তবুও বলি, খুব বেশি হলে হয়তো মৃত্যু হবে। একজনের মৃত্যু হলেও উপকার পাবেন অনেকে। আমি ভারতীয়, তাই দেশে আবিষ্কৃত ভ্যাকসিন আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’

- Advertisement -

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে করোনার টিকা কোভ্যাকসিন তৈরি করেছে ভারত বায়োটেক। আইসিএমআর ও পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি থেকে সার্স কোভ-২ ভাইরাসের স্ট্রেন নিয়ে ল্যাবরেটরিতে স্ক্রিনিং করে এই টিকা বানিয়েছে ভারত বায়োটেক।

নাইসেড জানিয়েছে, এই টিকা এমনভাবে তৈরি হয়েছে যাতে কোল্ড স্টোরেজের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় এটি রাখা যায়। মাইনাস ৪ ডিগ্রি সেলসিয়ায় তাপমাত্রায় রাখা হয়েছে কোভ্যাকসিন টিকার ভায়ালগুলি। ২৮ দিনের ব্যবধানে দুটি ডোজ দেওয়া হচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকদের। ভারত বায়োটেকের দাবি, করোনার নতুন স্ট্রেনের প্রতিষেধক হিসেবেও এই টিকা কার্যকরী হবে। এই টিকা থেকে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হবে, তা ৬-১২ মাস টিকবে। সক্রিয় থাকবে টি-কোষও। সংক্রমণজনিত জটিল রোগের আশঙ্কাও থাকবে না।

দেশের ২৪টি কেন্দ্রে মোট ২৮,৫০০ স্বেচ্ছাসেবকের ওপর কোভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হবে। বাংলায় ১ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের ওপর প্রয়োগ করা হবে। নিয়ম অনুযায়ী নাইসেডের ওয়েবসাইটের স্বেচ্ছাসেবক হওয়ার জন্য আবেদন করা যায়। পরীক্ষামূলক প্রয়োগের পর ৩০ মিনিট নাইসেডে থাকতে হবে। অসুস্থ হলে স্বেচ্ছাসেবককে হাসপাতাল অথবা নার্সিংহোমে ভর্তি করা হবে। স্বেচ্ছাসেবকদের অবশ্য নাইসেডের ১০ কিলোমিটারের মধ্যে বসবাস করতে হবে। স্বেচ্ছাসেবকদের একটি ডায়ারি দেওয়া হচ্ছে। এতে তাঁদের দৈনিক কার্যকলাপ লিখে রাখতে হচ্ছে। এছাড়া প্রতিমাসে তাঁদের শারীরিক অবস্থার গতিপ্রকৃতি নাইসেডে জানাতে হয়।