কলকাতা পুরসভার প্রশাসক পদে ইস্তফা ফিরহাদের, ছাড়ছেন সব সরকারি পদ

191

কলকাতা: আদালতে নানান মামলা করেও কলকাতার পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান পদ থেকে তাকে সরাতে পারেনি বিরোধীরা। প্রাক্তন মেয়র তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে সরাতে পারেনি বিরোধীরা। কিন্তু এবার নির্বাচন কমিশনের আইনি প্যাঁচে মহানাগরিকের দায়িত্ব সামলানো পদে ইস্তফা দিতে বাধ্য হলেন দিদির প্রানভাজন ববি। শুধু নগরনিগমের বোর্ড অফ চেয়ার‌ম্যানের দায়িত্ব নয়, কলকাতা মেট্রোপলিটান ডেভেলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান, নবদিগন্তের চেয়ারম্যান ও ফুরফুরা শরিফ উন্নয়ন পর্ষদের শীর্ষ পদও ছাড়ছেন পুরমন্ত্রী। পুরদপ্তর সূত্রে খবর, কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমন্ডলীর চেয়ারম্যান পদে ফিরহাদ ইস্তফা দিতেই রাজ্য সরকার মনোনীত বোর্ড যেমন ভেঙে যাবে, তেমনই ১৪৪টি ওয়ার্ডে প্রাক্তন কাউন্সিলরদের কো-অর্ডিনেটর পদটিও লুপ্ত হয়ে যাবে।

যদিও শনিবার পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, ‘নির্বাচনী আইন মেনে মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে সরকার মনোনীত কোনও পদে থাকা যাবে না। তাই ভারপ্রাপ্ত মেয়রের পদ-সহ মুখ্যমন্ত্রীর মনোনীত সমস্ত পদে ইস্তফা দিতে শুরু করেছি।’

- Advertisement -

এদিকে, ফিরহাদের এক ইস্তফার জেরেই ভোটের প্রস্তুতির মধ্যেই মহানগরে ডান-বাম সমস্ত দলের প্রাক্তন কাউন্সিলররা সরকারি তকমা ‘কো-অর্ডিনেটর’ পদ হারাচ্ছেন। বোর্ড ভেঙে গেলে প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য ও ১৬ জন বরো কো-অর্ডিনেটরের গাড়ি ও সরকারি সুযোগ সুবিধাও প্রত্যাহার করবে পুরসভা। বিধানসভা ভোটের ৭৫দিন পরে কলকাতায় পুরসভা  ভোট না হওয়া পর্যন্ত ১৪৪টি ওয়ার্ডেই পুর-প্রতিনিধি থাকছেন না। যদিও সমস্ত পুরসভায় প্রশাসক সরানোর দাবি নিয়ে নির্বাচন কমিশনে এবং আদালতে অভিযোগ করেছে বিরোধীরা।