সুকুমার রাযে হাঁসজারু কিংবা বকচ্ছপকে মনে আছে নিশ্চযই? বাস্তবে সেটা হতে দেখলে অবাক হওযারই কথা। সম্প্রতি চিনের দক্ষিণাঞ্চলে গুইঝৌ প্রদেশে সেরকমই দেখা গিয়েছে। নদীতে মৎস্যজীবী গিয়েছিলেন মাছ ধরতে। জালে উঠে এল এমন একটা মাছ যা দেখে সবারই চোখ ছানাবড়া। মাছটির শরীর মাছের মতো হলেও মাথাটা ঠিক পাযরার মতো। মুখে আবার পাযরার মতো চঞ্চুও রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি মিষ্টি জলের কার্প প্রজাতির মাছ। অনেকটা আমাদের পোনা মাছের মতো। ব্রিটেনের লিভারপুল বিশ্ববিদ্যালযে প্রাণীবিজ্ঞানী অ্যানড্রিউ কসিন্স জানিয়েছেন, খুব সম্ভবত ত্রুটিপূর্ণ কোশ বিভাজনের ফলেই মাছটির এরকম অদ্ভুত আকৃতি হয়েছে। তবে জলবাযু ও নদীর দূষণও এর কারণ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কসিন্সের মতে, রাসাযনিক দূষণের কারণে প্রাণীদেহে নিযমিত কোশের বৃদ্ধি বাধা পেতে পারে। এছাড়াও মাছেদের খাদ্যাভ্যাস এবং তাপমাত্রার পরিবর্তনও এর কারণ হতে পারে। কসিন্স জানান, এমনও হতে পারে, হযতো এই মাছটির মাথায একটি টিউমার বেড়ে উঠছে। যদিও সেক্ষেত্রে টিউমারটি কেন শরীরের বাকি অংশে ছড়িযে পড়েনি তা নিযে প্রশ্ন তুলেছেন কসিন্স। মাথার অংশটুকু বাদে মাছটির বাকি শরীর ছিল সুস্থ স্বাভাবিক মাছের মতোই। কসিন্স জানান, এই অস্বাভাবিকতার জন্য যদি মাছটির স্নাযুতন্ত্রে কোনও প্রভাব পড়ত তাহলে মাছটি ঠিকভাবে শ্বাস নিতে পারতো না। সেক্ষেত্রে দেহের আকৃতিও অনেক ছোট হত। মাছটিকে ধরা হলেও মেরে ফেলা হযনি। পরে তাকে আবার জলে ছেড়ে দেওযা হয।