নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে গাড়ি, উত্তরাখণ্ডে মৃত বাংলার ৫ পর্যটক

166

আসানসোল: উত্তরাখণ্ডে বেড়াতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়লেন একদল বাঙালি পর্যটক। বাগেশ্বর জেলার কাপকোটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ল গাড়ি। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে আসানসোলের ৫ জনের। জখম ৭ জন। তাঁরা স্থানীয় বাঘেশ্বর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জানা গিয়েছে, লক্ষী পুজোর পরের দিন অর্থাৎ গত ২১ অক্টোবর আসানসোল থেকে দেরাদুনে বেড়াতে গিয়েছিলেন ৩০ জনের একটি দল। বুধবার তাঁরা মুন্সিয়ান থেকে সড়কপথে কৌশানির দিকে যাচ্ছিলেন। তিনটি গাড়িতে ছিলেন পর্যটকরা। তার মধ্যে একটি গাড়িতে ছিলেন আসানসোল জেলা হাসপাতালের সহকারী সুপার কঙ্কন রায়। ফোনে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শ্যামা গ্রামে ব্রিজ পেরোনোর পর পেছন থেকে একটি গাড়ি আমাদের গাড়িকে ধাক্কা মারে। কোনওমতে সেই ধাক্কা সামলে নেন চালক। এরপর গাড়ি থেকে নেমে দেখি, পেছনে থাকা গাড়িটা রাস্তার পাশে খাদে পড়ে গিয়েছে। ওই গাড়িতে ১২ জন ছিলেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন স্থানীয় পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা।  খাদ থেকে সকলকেই উদ্ধার করে কাপকোট হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাঁদের মধ্যে ৫ জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। বাকি ৭ জনের শারীরিক অবস্থাও আশঙ্কাজনক। মৃতরা কিশোর ঘটক (৫৯), সালোনি চক্রবর্তী (৫৫), সুব্রত ভট্টাচার্য (৬১), চন্দনা খান (৬৪), রুণা ভট্টাচার্য (৫৫)।

- Advertisement -

আসানসোল দক্ষিণ থানা ও রানিগঞ্জ থানার পুলিশের পাশাপাশি পশ্চিম বর্ধমান জেলা প্রশাসন দেরাদুনের জেলা প্রশাসন সহ স্থানীয় থানার সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছে। সকলকে কীভাবে ফিরিয়ে আনা যায় তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। অন্যদিকে, দ্রুত সকলকে উত্তরপ্রদেশ থেকে ফিরিয়ে আনার আবেদন তুলে ধরা হয়েছে পর্যটকদের পরিবারের তরফে।