কালিয়াচকে ফের পাঁচ করোনা আক্রান্তের হদিস

638

কালিয়াচক: ফের পাঁচজন সংক্রামিত হলেন কালিয়াচকে। শনিবার সকালে কালিয়াচক ব্লক প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কাছে পাঁচজনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে একজন কালিয়াচক থানার সিভিক ভলান্টিয়ার রয়েছেন। তাঁর বাড়ি কালিয়াচকের সুলতানগঞ্জ গ্রামে। সে ছাড়াও একজন আক্রান্ত মালদার অমৃতি এলাকার। বাকি তিন জনের মধ্যে ২ জন গৃহবধূ রয়েছেন। তাঁদের একজনের বাড়ি রাজনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের কাঠালবাড়ি এলাকায়। অপর মহিলার বাড়ি সিলামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাহাদুরপুর গ্রামে।

এদিকে ওই সিভিক ভলান্টিয়ার সহ মোট কালিয়াচক থানার তিন সিভিক ভলান্টিয়ার আক্রান্ত হলেন। গত শুক্রবার কালিয়াচকের গোলাপগঞ্জ বাড়ির এক মহিলা পুলিশ কর্মীর পজেটিভ রিপোর্ট এসেছিল। সবমিলিয়ে কালিয়াচকের চারজন পুলিশকর্মী সংক্রামিত হয়েছেন বলে খবর। এদিনের রিপোর্ট অনুযায়ী ওই সিভিক ভলান্টিয়ারের সংস্পর্শে আসা পুলিশ সহ অন্যান্যদের খোঁজ চলছে।

- Advertisement -

মালদার অমৃতি এলাকার ওই করোনা আক্রান্ত আবার হোমগার্ডের কাজ করতেন। তিনি কালিয়াচকের মজমপুর শাখার স্টেট ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন। তবে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে এই প্রথম কালিয়াচকের কোনও কৃষকের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। তাঁর বাড়ি জালালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কাশিমনগর গ্রামে।

তাছাড়া, কালিয়াচকে দিনে দিনে যেভাবে স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশকর্মীরা সংক্রামিত হচ্ছেন তাতে চিন্তা বেড়েছে স্থানীয় ব্লক প্রশাসন সহ সাধারণ মানুষের মধ্যে। কারণ, বিগত দিনে ভিনরাজ্য ফেরৎ পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ দেখা গিয়েছিল। তারপর হঠাৎ করে স্থানীয়দের মধ্যে সংক্রমণ দেখা দিতেই এলাকায় আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর, এদিনের রিপোর্টে আসা পাঁচ করোনা আক্রান্তরা জ্বর,সর্দি নিয়ে চিকিৎসার জন্য কালিয়াচকের সিলামপুর গ্রামীণ হাসপাতালে আসেন। সেখানেই তাঁদের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।কালিয়াচকের বিএমওএইচ পারভেজ আলম জানান, ওই পাঁচ করোনা আক্রান্তকে চিহ্নিত করে কোভিড হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের খোঁজ চলছে।