গ্রামে তিস্তার জল ঢোকায় বন্যা পরিস্থিতি, বাড়ছে উদ্বেগ

160

লাটাগুড়ি: গত কয়েকদিনের লাগাতার বৃষ্টির জেরে ফের বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ক্রান্তি ব্লকের চাপাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ণ এলাকায়। গ্রামে তিস্তার জল প্রবেশ করে প্রায় সাড়ে চারশো বাড়ি জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। বাড়ি ছেড়ে বহু মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন তিস্তার বাঁধের ওপর। বন্যা কবলিত মানুষদের জন্য শুকনো খাবার, শিশুখাদ্য ও পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে ব্লক প্রশাসনের তরফে। যদিও পর্যাপ্ত পরিমাণ ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বন্যা দুর্গত মানুষদের তরফে। সোমবার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করবেন জলপাইগুড়ির জেলাশাসক মৌমিতা গোদরা বাসু।

ভারি বৃষ্টিপাতের জেরে বাড়তে শুরু করেছে তিস্তার জল। তিস্তার জল প্রবেশ করতে শুরু করেছে বিস্তীর্ণ এলাকায়। গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে দিয়ে দোমোহানি ক্রান্তিগামী রাজ্য সড়কের ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে তিস্তার জল। যার জেরে বন্ধ রয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। এলাকার বহু মানুষের ঘরে উনুন জ্বলেনি। স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে জানান, প্রশাসনের তরফে কোনও সাহায্য করা হয়নি। স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নন্দিতা রায় মল্লিক জানান, প্রশাসনের তরফে বন্যা কবলিত মানুষদের খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। প্রান্তিকের বিডিও প্রবীর কুমার সিনহা জানান, বন্যা কবলিত এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা সমাধানের জন্য বেশ কয়েকটি পানীয় জলের ট্যাংক খুব উঁচু জায়গায় টিউবওয়েল বসানো হয়েছে। গোটা পরিস্থিতির ওপর নজর রয়েছে।

- Advertisement -