প্লাবিত রায়গঞ্জের নদীবাধ সংলগ্ন কয়েকটি ওয়ার্ড

223

দীপংকর মিত্র, রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডের জলে প্লাবিত হয়েছে রায়গঞ্জ পুরসভার ৭ ও ৮ নং ওয়ার্ডের কিছুটা অংশ।পাশাপাশি কুলিক নদীবাঁধের স্লুইস গেট লিক করে নদীর জল ঢুকে পড়েছে শক্তিনগর, মিলনপাড়া এলাকায়। ফলে নদীবাধ সংলগ্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। নদীর জলে ডুবে গিয়েছে ঘরবাড়ি। পলিথিন টাঙিয়ে কুলিক নদীবাঁধের উপর আশ্রয় নিয়েছেন কয়েকশো পরিবার। অবিলম্বে শক্তিনগর এলাকার কুলিক নদীবাঁধের ভাঙা স্লুইস গেট মেরামত না করলে ভাসবে গোটা রায়গঞ্জ শহর।

রায়গঞ্জ পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর বরুন ব্যানার্জী জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই সেচ দপ্তর স্লুইস গেট মেরামতের টেন্ডার করে দিয়েছে। খুব শীঘ্রই কাজ শুরু হবে। পুরসভার পক্ষ থেকে দুর্গত বাসিন্দাদের জন্য পানীয় জল ও পলিথিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ১৫০ পলিথিন দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, প্রতি বছরই ওই এলাকা প্লাবিত হয়।তবে এবছর তুলনামূলক বেশি। গতকাল নদীর জল বাধ লিক করে জল ঢুকলেও আজ নদীর জল কমেছে। তাই আজ বিকেলে স্লুইস গেট খুলে দিয়ে এলাকার জল বের করে দেওয়া হবে।

- Advertisement -

মঙ্গলবার স্লুইস গেট লিক করে কুলিক নদীর জল ঢুকছে রায়গঞ্জ শহরের পুরসভার ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের শক্তিনগর ও পশ্চিম মিলনপাড়ার বাঁধ সংলগ্ন এলাকায়। বাড়িঘর ছেড়ে বাধ্য হয়ে বাঁধের উপরে আশ্রয় নিয়েছেন দুর্গত বাসিন্দারা। শক্তিনগর এলাকার বাসিন্দা নীলম পাশমান, দুখু পাসমানরা জানিয়েছেন, কুলিক নদীবাঁধের স্লুইস গেট লিক করে নদীর জলে তাদের বাড়িঘর ডুবে গিয়েছে। ছোট ছোট ছেলে মেয়ে ও পরিবার পরিজন গবাদি পশু নিয়ে বাঁধের উপর আশ্রয় নিয়েছি।

স্থানীয় কাউন্সিলর পলিথিন দিয়েছেন সেই পলিথিন টাঙিয়ে অস্থায়ী ছাউনি তৈরি করে দুরাবস্থার মধ্যে রয়েছি আমরা। দুর্গত মানুষদের পানীয়জলের জন্য পুরসভা থেকে পানীয়জলের ট্যাংক দেওয়ার পাশাপাশি বাঁধে কয়েকটি টিউবওয়েল বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। পলিথিন দেওয়া হয়েছে। খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হচ্ছে। এলাকার বাম ও বিজেপি নেতৃত্ব দুর্গত মানুষদের জন্য ত্রাণের ব্যবস্থা করেছে।বাসিন্দাদের আশঙ্কা, আবার বৃষ্টি হলে প্লাবিত হয়ে পড়বে বিস্তৃত এলাকা।