বরফের চাদরে মোড়ানো অ্যান্টার্কটিকা। সেখানেই শোনা গেল অদ্ভুত এক সুর। যেন অপার্থিব আর অদ্ভুত সেই সুর। বিজ্ঞানীরা এখন তা রেকর্ডিংযে ব্যস্ত। আন্টার্কটিকার রস আইস শেলফ অঞ্চলে, এই ভৌতিক সঙ্গীতের উৎপ ত্ত হয়েছ। বিজ্ঞানীদের মতে, বরফের পাহাড়ের মাঝখান দিযে হাওয়া বয়ে যাওয়ার সময় এই সুরের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে তা মানুষের কানে পৌঁছানোর কথা নয। কেননা যে তরঙ্গে এই সুর বা শব্দ সৃষ্টি হয তা মানুষের শ্রবণক্ষমতার বাইরে।

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা সিসমিক সেন্সর ব্যবহার করে সেই সুরকে শ্রবণযোগ্য করে তুলছেন। আর তা রেকর্ড করে নিযে এসেছেন সবার সামনে। দুবছর ধরে এই রেকর্ডিংযে কাজ করে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁরা রস আইস শেলফ অঞ্চলে ৩৪টি সিসমিক সেন্সর বসান। মূলত ওই অঞ্চলের ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বিশদ তথ্য সংগ্রহের জন্য এই সেন্সরগুলো বসানো হয। আর তাতেই ধরা পড়ে এই অদ্ভুত সুর।

গবেষক দলের প্রধান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো বিশ্ববিদ্যালযে গণিতজ্ঞ ও ভূ-পদার্থবিদ জুলিযান শাপুত জানিযেেন, এই অঞ্চলে সৃষ্টি হওযা এই সুর অনেকটা নিরন্তরভাবে বাজানো বাঁশির সুরের মতো। আবার ঝড় হলে সেই সুরে পরিবর্তন আসে।