বীরপাড়ার বন্ধ চা বাগান গুলিতে চাল বিলি করছে খাদ্য দপ্তর

294

রাঙ্গালিবাজনা: আলিপুরদুয়ার জেলার তিনটি বন্ধ চা বাগানের শ্রমিক কর্মচারিদের মধ্যে পুজোর মুখে চাল বিলি শুরু করল খাদ্য দপ্তর। সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে খবর, বুধবার থেকে বন্ধ চা বাগান ঢেকলাপাড়া, লঙ্কাপাড়া ও বীরপাড়া চা বাগানের শ্রমিক কর্মচারিদের পাঁচ কেজি করে চাল দেওয়া শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবারও চাল বিলি করা হবে।

এদিন ঢেকলাপাড়ার ৬৭৯ জন, লঙ্কাপাড়ার ১৮৯০ জন ও বীরপাড়া চা বাগানের ২১৮৬ জন শ্রমিক কর্মচারীকে চাল দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে খাদ্য দপ্তর। বুধবার চাল বিলি করতে চা বাগানগুলিতে যান মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রোহিত বিশ্বকর্মা, আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের বীরপাড়া এলাকার সদস্যা যশিন্তা লাকড়া, মাাদারিহাটের ফুড ইন্সপেক্টর প্রদীপ কুমার রায় প্রমুখ। মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ রশিদুল আলম বলেন, “পুজোর সময় বন্ধ চা বাগানে কেউ যাতে অভুক্ত না থাকেন সেই চিন্তা করে রাজ্য সরকার ওই উদ্যোগ নিয়েছে।”

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, ঢেকলাপাড়া চা বাগানটি ২০০২ সাল থেকে, লঙ্কাপাড়া চা বাগানটি ২০১৫ সাল থেকে এবং বীরপাড়া চা বাগানটি ২০১৯ সাল থেকে বন্ধ রয়েছে। ওই চা বাগানগুলির বহু শ্রমিক কর্মচারী রুজির সংস্থান করতে ভিনরাজ্যে পাড়ি দিয়েছিলেন। কিন্তু করেনা পরিস্থিতির জেরে তাঁরা বাধ্য হয়ে ঘরে ফিরেছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই নদী থেকে বালি বজরি তোলার কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। কিন্তু অনেকের বরাতেই জোটে না সেই কাজ। স্বাভাবিকভাবেই, রুজির সমস্যায় পড়েছেন বন্ধ চা বাগানগুলির শ্রমিক কর্মচারীরা।