বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চ্যাংরাবান্ধা সীমান্ত দিয়ে বৈদেশিক বাণিজ্য শুরু

420

গৌতম সরকার, চ্যাংরাবান্ধা: অবশেষে বৃহস্পতিবার থেকে কোচবিহার জেলার চ্যাংরাবান্ধা সীমান্ত দিয়ে পুণরায় ভারত-বাংলাদেশ ও ভুটান-বাংলাদেশের মধ্যে বৈদেশিক বাণিজ্য চালু হতে চলেছে। তবে এবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই বাণিজ্য চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, এদিন সকাল এগারোটা নাগাদ সীমান্তের জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন এলাকায় এই উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সেই অনুষ্ঠানে রাজ্যের দুই মন্ত্রী তথা অনগ্রসর কল্যাণ মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন, উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তরবঙ্গ কোর কমিটির আহ্বায়ক তথা অলিপুরের বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী, মেখলিগঞ্জের বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধান প্রমূখ ছাড়াও এলাকার বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি, জেলা, মহকুমা ও ব্লক প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন।

- Advertisement -

চ্যাংরাবান্ধা স্থলবন্দর যৌথ সংগ্রাম কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক অজয় প্রসাদ এপ্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘বৃহস্পতিবার থেকে এই সীমান্ত দিয়ে পুণরায় বৈদেশিক বাণিজ্য করার লক্ষ্যেই তারা এগোচ্ছেন।’ লকডাউনের কারণে এই সীমান্ত দিয়ে টানা তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে বৈদেশিক বাণিজ্য বন্ধ ছিল। মাঝে গত ১০ জুন বাণিজ্য চালু হলেও ঘন্টা তিনেক পর ফের প্রশাসনের নির্দেশে বন্ধ হয়ে যায়।এতে সমস্যায় পরে যান বাণিজ্যের সাথে যুক্ত প্রচুর মানুষ।বাণিজ্য চালুর দাবিতে সোচ্চার হন তারা। বিভিন্ন মহলের দ্বারস্থ হয়ে তারা বাণিজ্য চালুর দাবি জানান।

এরপর মঙ্গলবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার থেকে চ্যাংরাবান্ধা স্থল বন্দর দিয়ে বৈদেশিক বাণিজ্য চলার কথা ঘোষণা করেন। এতে খুশি এই এলাকার মানুষজন। তবে যেহেতু বিভিন্ন প্রক্রিয়া এবং নিয়ম কানুনের বিষয় রয়েছে তাই এনিয়ে একটু সময় নিয়ে এবং সরকারি নিয়ম কানুন ভালো করে বুঝে তবেই বৈদেশিক বাণিজ্য করার পক্ষে মত প্রকাশ করেন। সেই অনুুুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকে এই বাণিজ্য চালু হতে চলেছে।