অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ প্রয়াত

522

অনলাইন ডেস্ক: অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তরুণ গগৈ প্রয়াত। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা বলেন, দীর্ঘদিন রোগে ভোগার পর সোমবার বিকেল ৫টা ৩৪ মিনিটে মৃত্যু হয়েছে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈয়ের। ২০০১ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত টানা তিনবার অসমের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন তিনি। ৬ বার লোকসভার সাংসদও নির্বাচিত হন তিনি।

অগস্ট মাসের শেষের দিকে তরুণ গগৈ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন৷ এরপর তিনি সুস্থ হয়ে ওঠেন। অক্টোবর মাসে হাসপাতাল থেকে ছাড়াও পেয়ে বাড়িতেও ফেরেন৷ কিছুদিন সুস্থ থাকলেও নভেম্বর মাসের শুরুতে ফের অসুস্থতা অনুভব করেন তিনি। এরপরই তাঁকে আবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রথম থেকেই ভেন্টিলেশনে রয়েছেন তিনি। শনিবার তাঁকে ইনভেসিভ ভেন্টিলেশন থেকে তাঁকে ইনটিউবেশন ভেন্টিলেশন স্থানান্তরিত করা হয়।

- Advertisement -

শনিবারই হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে ইনটিউবেশন ভেন্টিলেশন স্থানান্তরিত করা হয়েছে। বেশকিছু দিন চিকিৎসা চললেও তাঁর অবস্থার উন্নতি হয়নি। বরং শনিবার থেকে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে শুরু করে। তাঁর শরীরের একাধিক অঙ্গ কাজ করা বন্ধ করে দেয়। মারাত্মক শ্বাসকষ্টও দেখা দেয়। রবিবার তাঁর ডায়ালিসিস করা হয়েছিল। কিন্তু তাতেও শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। এরপর সোমবার বিকেলে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তরুণ গগৈয়ের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইটে শোকপ্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন, শ্রী তরুণ গগৈ জি একজন জনপ্রিয় নেতা এবং একজন প্রবীণ প্রশাসক ছিলেন। অসমের মুখ্যমন্ত্রী পাশাপাশি সাংসদ হিসেবেও তাঁর বহু বছরের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা ছিল। তাঁর মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাহত। দুঃখের এই মুহুর্তে তাঁর তাঁর পরিবার ও সমর্থকদের পাশে রয়েছি। ওম শান্তি।

তাঁর প্রয়াণে রাহুল গান্ধিও গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন, শ্রী তরুণ গগৈ সত্যিকারের কংগ্রেস নেতা ছিলেন। অসমের সমস্ত সম্প্রদায়কে একসঙ্গে নিয়ে আসার জন্য তিনি নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। আমার কাছে তিনি শিক্ষকসম ছিলেন। তাঁকে ভালোবাসার পাশাপাশি অত্যন্ত শ্রদ্ধাও করতাম। আমি তাঁকে মিস করব। গৌরব (গগৈ) এবং তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা রইল।