গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব! গুলিবিদ্ধ বাঁশবেড়িয়া পুরসভার প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান

81
ছবি: প্রতীকী

কলকাতা: গুলিবিদ্ধ হলেন বাঁশবেড়িয়া পুরসভার প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান। এর পেছনে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বই রয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে হুগলির বাঁশবেড়িয়ায়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান আদিত্য নিয়োগীকে প্রথমে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাঁকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।

জানা গিয়েছে, আদিত্য বাবুর বাড়িতে কালীপুজো ছিল। সেই পুজো উপলক্ষ্যে তিনি বাজার করতে গিয়েছিলেন। বাজারে ফল কেনার সময় কে বা কারা পিছন থেকে তাঁকে গুলি করে চম্পট দেয়। গুলিটি আদিত্যবাবুর কোমরে লাগে। সঙ্গে সঙ্গে সেখানেই রক্তাক্ত অবস্থায় তিনি লুটিয়ে পড়েন। স্থানীয় বাসিন্দারা ও বাজারের লোকজন তাকে প্রথমে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান।

- Advertisement -

এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল নেতা সোনা শীলের বিরুদ্ধে। সোনাকে বাড়িতে পাওয়া না গেলেও উত্তেজিত জনতা তাঁর এক ঘনিষ্ঠের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ, কিছুদিন আগেই সোনা শীলকে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। বর্তমানে সে বিজেপি করে।স্থানীয় বিধায়ক তপন দাশগুপ্ত জানান, পরিকল্পিতভাবে খুনের চক্রান্ত ছিল তাঁর মতে যারা নির্বাচনের সময় বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছিল তারাই এই খুনের ছক কষে। তিনি অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি করেছেন। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত সোনা শীলের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। পাশাপাশি, এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তদন্ত শুরু হয়েছে।