বিজ্ঞানীরা পোল্যান্ডে ২০০ মিলিযন বছর পুরোনো এক প্রাণির ফসিল খুঁজে পেয়েছেন। ডাযনোসরের সমসামযিক এই প্রাণিটির আকার হাতির মতো। অত বছর আগে পৃথিবীতে ঘুরে বেড়াত বিশা ডাযনোসর। এ কথা জানা থাকলেও সেই সমযে এই প্রাণিটির কথা জানত না কেউই। কিছুদিন আগে বিজ্ঞানীদের একটি দল এমনই এক প্রাণির ফসিল খুঁজে পেয়েছেন।
চারপেযে এই প্রাণিটির ফসিল পাওযা গিয়েছে পোল্যান্ডের লিসোভিত্সে শহরের পাশে। তাই শহরের নামের সঙ্গে মিলিযে প্রাণিটির নাম রাখা হয়েছে লিসোভিত্সিযা বোজানি। সুইডেন ও পোল্যান্ডের বিজ্ঞানীদের এই দলটি জানিয়েছে, মূলত তৃণভোজী এই প্রাণিটির শরীর গণ্ডারের মতো হলেও ঠোঁট অবিকল কচ্ছপের মতো। এর আগে, ডাইসাইনোডন্ট প্রজাতির প্রাণিদের কথা বৈজ্ঞানিক মহলে আলোচিত হয়েছে। লিসোভিত্সিযার মতো ডাইসাইনোডন্ট প্রজাতির প্রাণিটিও তৃণভোজী ও অন্যান্য দিক দিযে স্তন্যপাযী জীবের কাছাকাছি। কিন্তু আকারের দিক থেকে লিসোভত্সিযা ডাইসাইনোডন্টের চেযে কযেগুণ বড়ো। বিজ্ঞানীরা বলেন, হাতির সমান লিসোভিত্সিযা দৈর্ঘ্যে সাড়ে চার মিটার ও দশ টন ওজনের।
বিজ্ঞানী টমাস সুলেজের মতে, এই আবিষ্কার নিঃসন্দেহে যুগান্তকারী, কারণ, ডাইসাইনোডন্ট বিষযে বর্তমান গবেষণার ধারা বদলাতে পারে এই আবিষ্কার। ডাযনোসরের বিশাল আকার নিযে অনেক অজানা তথ্য জানাবে এই লিসোভিত্সিযা। ২০৫ থেকে ২১০ মিলিযন বছর আগে ডাযনোসরের সঙ্গেই পৃথিবীতে আসে এই প্রাণিটি। অর্থাত্ এতদিন ইতিহাসের যে অধ্যাযকে বিজ্ঞানীরা চিনতেন শুধু ডাযনোসরের সময হিসাবেই, সেই ধারণাকে আমূল বদলাতে পারে পোল্যান্ডে খুঁজে পাওযা এই আশ্চর্য প্রাণীর ফসিল।