ফল পেতে ফল মাখুন চুলে
নিজের স্বাস্থ্য ফেরাতে ফল জরুরি, চুলেরও তাই। তার সঙ্গে আরও কিছু পুষ্টিকর উপাদান। তবেই না মজবুত হবে সে…

চুল ঝরে যাওযা খুব স্বাভাবিক। তবে দৈনিক ৫০-১০০টিরও বেশি চুল ঝরতে থাকলে তা মোটেও স্বাভাবিক ব্যাপার নয। সাধারণত অপুষ্টি, অ্যালার্জি, টেনশন, খারাপ জল প্রভতি অন্যতম কারণ। এর মধ্যে আবহাওযা এবং খারাপ জলের কারণে চুলের ক্ষতি হয সবচেযে বেশি। বরং এমন কযেটি ঘরোযা প্যাক সম্পর্কে জেনে নেওযা যাক, যেগুলো সারা বছর ব্যবহার করলে চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওযা সম্ভব।
চুল শুকনো আর রুক্ষ হযে গেলে ডিম আর দুধের প্যাক ভীষণ উপকারী। দুটো ডিমের কুসুমের সঙ্গে এককাপ কাঁচা দুধ, দু-চামচ অলিভ অযে আর দু-চামচ পাতিলেবুর রস মিশিযে নিন। এই প্যাক ভালো করে মাথায মাখিযে রেখে দিন। মিনিট পনেরো পরে গরম জলে শ্যাম্পু দিযে ধুযে ফেলুন।
রুক্ষ চুলের যত্নে আর অতিরিক্ত চুল ঝরার সমস্যায কলা, মধু আর নারকেল তেলের প্যাক ব্যবহার করে দেখতে পারেন। একটা গোটা পাকা কলা চটকে তার সঙ্গে দু-চামচ মধু, এক কাপ কাঁচা দুধ আর দু-চামচ নারকেল তেল মিশিযে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাক চুলের গোড়া থেকে ডগা অবধি ভালো করে মেখে আধঘণ্টা মতো রাখুন। এর পর শ্যাম্পু দিযে ধুযে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত বার তিনেক এই প্যাক ব্যবহার করুন। হাতেনাতে ফল পাবেন।
চুলের স্বাস্থ্য ধরে রাখতে ওটস, নারকেলের দুধ আর মধু মিশিযে চুলে মাখতে পারেন। এক চামচ ওটসের সঙ্গে দু-চামচ মধু, এক কাপ কাঁচা দুধ মিশিযে নিন। এই প্যাক চুলের গোড়ায লাগিযে রাখুন আধঘণ্টাটাক। তারপর শ্যাম্পু করে নিন।
চুল শুকনো আর রুক্ষ হযে গেলে ডিম আর টকদইযে প্যাক খুব উপকারী। তিনটে ডিমের কুসুমের সঙ্গে আধকাপ টকদই মিশিযে নিন। ভালো করে ফেটিযে নিন। এই প্যাক চুলের গোড়া থেকে ডগা অবধি মিনিট পনেরো মাখিযে রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করে নিন।