টি২০ বিশ্বকাপ নিয়ে আলোচনার সম্ভাবনা কম

অরিন্দম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : প্রবল চাপ রয়েছে। মোকাবিলার পালটা স্ট্র‌্যাটেজিও রয়েছে!

সবমিলিয়ে কাল দুবাইয়ে আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে হাওয়া গরমের যথেষ্ট সম্ভাবনা। কিন্তু তারপরও আপাতত অ্যাডভান্টেজ বিসিসিআই!

- Advertisement -

কাল আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে যোগ দিতে আজ সচিব জয় শা, কোশাধ্যক্ষ অরুণ সিং ধুমল, সহ সচিব জয়েশ জর্জরা দুবাই পৌঁছে গিয়েছেন। বোর্ডের সিইও হেমাঙ্গ আমিন ও টি২০ বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটির প্রধান ধীরাজ মালহোত্রাও এখন দুবাইয়ে। ভারতের মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপের আসর ধরে রাখার জন্য ঘুঁটি সাজানোর খেলাও শুরু হয়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, বেশ কয়েকটি টেস্ট খেলিয়ে দেশের বোর্ডের সমর্থন নিয়ে কাল আইসিসির থেকে আরও এক মাস সময় আদায়ে কাজটা অনায়াসে করে ফেলবে বিসিসিআই। ফলে কালকের বৈঠকে টি২০ বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে আইসিসিরই একটি নিয়ম। যেখানে বলা হয়েছে, বিশ্বকাপ বা সমমানের কোনও প্রতিযোগিতা আয়োজনে ছয় মাস আগে থেকে সব চূড়ান্ত না করলেও চলবে। কিন্তু প্রতিযোগিতার আগে শেষ আইসিসির বার্ষিক সভার দিনের মধ্যে চূড়ান্ত করতে হবে সব। আইসিসির সেই অ্যানুয়াল মিটিং দুবাইয়ে ১৮ জুলাই। ফলে দেশের মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য সরকারিভাবে এক মাস সময় চাইলেও বিসিসিআইয়ে জন্য থাকছে দেড় মাস সময়।

১৮ জুলাইয়ের আগে ভারতে করোনা পরিস্থিতি আরও স্বাভাবিক হবে, এমনটাই আশা করছেন বোর্ডের শীর্ষ কর্তারা। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনই সরকারিভাবে কেউ কোনও মন্তব্য করছেন না। সৌজন্যে কালকের বৈঠক। আগাম মন্তব্য পরিস্থিতি বিগড়ে দিতে পারে বলে মুখ বন্ধ বিসিসিআই কর্তাদের। সভাপতি সৌরভ কলকাতায়। কাল বেহালার বাড়ি থেকেই তিনি আইসিসি বৈঠকে যোগ দেবেন ভার্চুয়ালি। ব্যক্তিগত কারণে তিনি আজ জয় শা-দের সঙ্গে দুবাই যেতে পারেননি বলে খবর। বদলে মহারাজের বুধবার দুবাই যাওয়ার কথা। বুধবার দুবাই পৌঁছানোর পর সেখানকার ক্রিকেট কর্তাদের সঙ্গে স্থগিত আইপিএল শুরু নিয়ে আলোচনা সারবেন মহারাজ। পাশাপাশি, দুবাই-আবু ধাবি-শারজার মাঠ ও পরিকাঠামো খতিয়ে দেখবেন তিনি। বোর্ড সভাপতির ঘনিষ্ঠমহল থেকে আজ ইঙ্গিত মিলেছে, সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের আইপিএলের সময় সংযুক্ত আরব আমিরশাহির গ্যালারিতে দর্শক ফিরতে চলেছে। ইউএই সরকারের নিয়মেই অন্তত ৫০ শতাংশ দর্শক থাকতে পারবেন গ্যালারিতে।

সফলভাবে আইপিএল আয়োজনের পাশে দেশে টি২০ বিশ্বকাপ আয়োজনে মরিয়া বিসিসিআই। সেই লক্ষ্যে কালকের বৈঠকে নিজেদের অবস্থান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে বিসিসিআই শীর্ষ কর্তাদের জন্য। বোর্ডের একটি সূত্রের দাবি, পরিস্থিতি কঠিন হলেও আইসিসির থেকে ম্যাচ বের করা যাবে। কিন্তু আমাদের দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না এলে পরে কিছু করার থাকবে না। কাল আইসিসি বৈঠকে আরও সময় চেয়ে নেওয়ার পাশে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে টি২০ বিশ্বকাপ আয়োজনে কর ছাড়ের বিষয়ে বিসিসিআই অনেকটা এগিয়ে গিয়েছে বলে খবর। কাল আইসিসিকে কর ছাড় নিয়ে আশ্বস্ত করা হবে বিসিসিআইয়ে তরফে।

আইসিসি বৈঠকে কাল টি২০ বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত না হলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যালেন্ডার তৈরির চ্যালেঞ্জ থাকছে। ২০২৩-২০৩১, আন্তর্জাতিক ক্যালেন্ডার তৈরির সময় আইসিসিকে করোনার কারণে বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট বোর্ডের বেহাল আর্থিক দশার কথাও খেয়াল রাখতে হবে। রাতের দিকে আইসিসির এক প্রতিনিধি দুবাই থেকে উত্তরবঙ্গ সংবাদকে বলেন, করোনা বিশ্ব জুড়ে ক্রিকেটের ছবিটা বদলে দিয়েছে। তাই আমাদের এখন অনেক বিষয়ে সাবধানে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করতে হবে। পাশাপাশি ২০২৮ লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিকে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্তি নিয়ে আলোচনা হবে কালকের বৈঠকে।