নয়াদিল্লি, ৭ এপ্রিলঃ বিজেপির নির্দেশে বাংলার চার পুলিশকর্তাদের বদলি করেছে নির্বাচন কমিশন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই অভিযোগ খারিজ করে দিল কমিশন। তাদের দাবি, নির্বাচনী আইন মেনে সম্পূর্ণরূপে নিজেদের এক্তিয়ারে থেকেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কমিশন জানিয়েছে, বৃহত্তম গণতন্ত্রে নির্বাচকদের কাছে দায়বদ্ধ নির্বাচন কমিশন ও রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সরকাররা। মডেল কোড অফ কন্ডাক্টের সময় ইসিআই-এর একটি পদক্ষেপকে স্বৈরাচারী ও কেন্দ্রের শাসক দলের পক্ষপাতিত্ব করার তকমা দেওয়াটা দুর্ভাগ্যজনক। পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনী প্রক্রিয়ার পর্যবেক্ষক ডেপুটি ইলেকশন কমিশনার ও স্পেশ্যাল পুলিশ অবজারভারের ফিডব্যাকের ভিত্তিতেই ওই চার পুলিশ আধিকারিককে বদলি করা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, কয়েক রাউন্ড পর্যালোচনার পর পশ্চিমবঙ্গের জন্য বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন। স্পেশাল পুলিশ অবজারভার নিয়োগ করা হয়েছে ঝাড়খণ্ড, অরুণাচলপ্রদেশ, মিজোরাম, ত্রিপুরা ও তেলেঙ্গানাতেও।

কেরল হাইকোর্টের একটি নির্দেশের উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেওয়া চিঠিতে ডেপুটি ইলেকশন কমিশনার জানিয়েছেন, রিপ্রেজেন্টেশন অফ পিপল অ্যাক্টের ২৮এ ধারায় কমিশন নির্বাচনের সময় পুলিশকর্তাদের বদলি করতে পারে।