কেওড়াতলায় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য তাপস পালের

273

কলকাতা, ১৯ ফেব্রুয়ারিঃ শেষযাত্রায় তাপস পাল। বুধবার সকালে গল্ফগ্রিনের বাড়ি থেকে তাঁর মরদেহ প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় টেকনিশিয়ান স্টুডিয়োতে। সেখান থেকে তাঁর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রবীন্দ্র সদনে। এদিন অভিনেতা তথা প্রাক্তন সাংসদকে শেষশ্রদ্ধা জানাতে ভিড় উপচে পড়ে অনুরাগীদের। শেষশ্রদ্ধা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে ছিলেন সুদীপ বন্দ্যেপাধ্যায় ও সিপি অনুজ শর্মা। উপস্থিত ছিলেন টলিউডের কলাকুশলীরাও। শেষশ্রদ্ধা জানানোর পর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কেওড়াতলা মহাশ্মশানে। সেখানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

মঙ্গলবার ভোররাতে মুম্বইয়ের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তাপস পাল। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। পরিবার সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরে স্নায়ুর রোগে ভুগছিলেন অভিনেতা। রাতে মুম্বই থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে তাঁর মরদেহ নিয়ে আসা হয়। শ্রদ্ধা জানাতে বিমানবন্দরে এসেছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

- Advertisement -

মাত্র ২২ বছর বয়সে অভিনয় জগতে পদার্পণ তাপস পালের। ‘দাদার কীর্তি’, ‘গুরুদক্ষিণা’, ‘সাহেব’, ‘ভালবাসা ভালবাসা’ তাঁর হিট ছবিগুলির মধ্যে অন্যতম। ২০০১ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের হাত ধরে সক্রিয় রাজনীতিতে পা রাখেন তিনি। আলিপুর বিধানসভা থেকে তৃণমূলের তরফে দু’বার বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন তাপস পাল। তাঁর মৃত্যুতে টালিগঞ্জ থেকে শুরু করে রাজনৈতিক মহল সর্বত্রই শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷