রাতের অন্ধকারে নদীপাড়ে সৎকার, পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ গ্রামবাসীর

301

বর্ধমান: রাতের অন্ধকারে পুলিশ গোপনে করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ সৎকার করাচ্ছে ভাগীরথীর পাড়ে। এমন অভিযোগ ঘিরে শনিবার বিকাল থেকে উত্তাল হয়ে ওঠে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী ২ ব্লকের কমলনগর গ্রাম। পুলিশকে ঘেরাও করে রাত পর্যন্ত বিক্ষোভ দেখাল গ্রামের মহিলা ও পুরুষরা। পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া কমলনগর গ্রামের বাসিন্দাদের অভিযোগ, ‘গ্রামের ভাগীরথী নদীর পাড়ে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশের উপস্থিতিতে গোপনে এক ব্যক্তির মৃতদেহ সৎকার করা হয়েছিল। সেই মৃতদেহের সৎকারও ভালোভাবে করা হয়নি। ভাগীরথীর পাড়েই পড়ে থাকে মৃতদেহের আধপোড়া অংশ।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দা বাবলু মন্ডল,মিলন মন্ডল প্রমুখরা বলেন, ভাগীরথীর পাড়ে মৃতদেহের আধপোড়া অংশ পড়ে থাকার বিষয়টি শুক্রবার এলাকার বাসিন্দাদের নজরে আসে। যা দেখে গ্রামের বাসিন্দারা মনে করতে শুরু করেন পুলিশ নিশ্চই রাতের অন্ধকারে গোপনে করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ গ্রামের ভাগীরথীর পাড়ে সৎকার করিয়েছে। শুক্রবার সারাদিন গ্রামের লোকের মুখে মুখে এই কথা ঘুরপাক খেতে থাকে। শনিবার ওই এলাকায় পুলিশ গেলে গ্রামবাসীদের ক্ষোভ পুলিশের উপরে আছড়ে পড়ে। গ্রামবাসীরা পুলিশকে ঘিরে ধরে ওই আধপোড়া মৃতদেহের অংশ তুলে নিয়ে যাওয়ার দাবি করে রাত পর্যন্ত আটকে রাখে। এ বিষয়ে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ধ্রুব দাসকে ফোনে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে কালনার মহকুমা শাসক সুমন সৌরভ মহান্তি গোটা ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানাগিয়েছে।