দশভুজা মমতার কোলে গণেশ, মালদায় তীব্র বিতর্ক

270

হরিশ্চন্দ্রপুর: গণেশ পুজোর মণ্ডপে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দশভুজা হিসেবে তুলে ধরায় বিতর্ক শুরু মালদায়। তৃণমূল নেতা-কর্মী সমর্থকদের পরিচালিত হরিশ্চন্দ্রপুর জাগরন সংঘের পুজোয় মমতার কোলে গণেশের এই মূর্তি সকলের নজর কেড়েছে। শুক্রবার রাতে এই পুজোর উদ্বোধন করেন জেলার তৃণমূল নেতৃত্ব। পুজোর মণ্ডপে দেবী দুর্গার রূপে রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মূর্তি। পরনে নীল সাদা শাড়ি, দশ হাতে কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী ইত্যাদি প্রকল্প, দুই হাতে গনেশকে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি।আর এই মূর্তি নিয়েই বিতর্ক ছড়িয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তীব্র কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়েছে বিজেপি। বিজেপি জেলা সম্পাদক কিষান কেডিয়া জানান, দেবী দুর্গার সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী তুলনা করাটা ঠিক হয়নি। এটা হয়তো মুখ্যমন্ত্রীও সমর্থন করবেন না। আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে এর জবাব দেবেন। এটা অত্যন্ত বাড়াবাড়ি পর্যায়ে চলে গিয়েছে।

যদিও ক্লাব কর্তৃপক্ষের বক্তব্য, পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদের বিগত ১০ বছরের বেশি সময় ধরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দশভুজার মতো রক্ষা করে চলেছেন। একের পর এক জনকল্যাণকর প্রকল্পের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষদের সাহায্য করছে সরকার। তাই তাঁর সঙ্গে দেবী দুর্গার তুলনা করে মূর্তি বানানো হয়েছে। এরমধ্যে আপত্তির কিছুই দেখছেন না তাঁরা। তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক ও ক্লাব সম্পাদক বুলবুল খান বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেবী দুর্গার মতো আমাদের পশ্চিমবঙ্গবাসীর সুখে দুঃখে পাশে দাঁড়াচ্ছে। তাই ওনাকে সম্মান জানাতে দেবী দুর্গার রূপ দিয়েছি। এতে অন্যায়ের কিছু নেই। একসময় এনডিএ শরিক থাকাকালীন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মা দুর্গার সঙ্গে তুলনা করেছিলেন আরএসএস নেতারা। তখন বিজেপির সঙ্গে গোপন আঁতাতের অভিযোগে তুলে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আরএসএসের দুর্গা বলে কটাক্ষ করেছিলেন। কিন্তু এই ঘটনার নিন্দা করেছে আরএসএসও। জেলা আরএসএস প্রচার প্রমুখ বাদল প্রামাণিক জানান, আরএসএস একসময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দুর্গার সঙ্গে তুলনা করেছিলেন ঠিকই কিন্তু তাঁকে দেবীর আসনে বসিয়ে পুজো করার কথা বলেনি। আর এই ধরনের ঘটনাকে আরএসএস তীব্র নিন্দা করে।

- Advertisement -