থানায় ১০ দিন আটকে গণধর্ষণের অভিযোগ

307
প্রতীকী ছবি

ভুপাল: থানার লকআপে আটকে রেখে এক মহিলাকে টানা ১০ দিন লাগাতার গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল মধ্যপ্রদেশের রেওয়ার ৫ পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধে। বছর ২০-র ওই মহিলার অভিযোগ, ১০ দিন তাঁর ওপর অত্যাচার করেছেন দুই অফিসার সহ ৫ জন পুলিশকর্মী। রেওয়া জেলার মনগওয়াঁর একটি থানায় এমন কুকর্মের খবর প্রকাশ্যে আসায় নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন।

১০ অক্টোবর একজন অতিরিক্ত জেলা বিচারক এবং আইনজীবীদের একটি দল জেল পরিদর্শনে গেলে ওই পাঁচ পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ করেন মহিলাটি। খুনের অভিযোগে ওই মহিলা আপাতত কারাবন্দি। তিনি জানিয়েছেন, ৯ মে থেকে ২১ মে পর্যন্ত থানার লকআপে রেখে তাঁর ওপর অত্যাচার চালানো হয়। থানার এক মহিলাকর্মী প্রতিবাদ করলে অভিযুক্তরা তাঁকে শাসায় বলে অভিযোগ করেছেন ওই যুবতী। এরপর জেলা বিচারক এই অভিযোগের বিষয়ে বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। পদক্ষেপ করার জন্য রেওয়ার পুলিশ সুপার রাকেশ সিংকে চিঠি দিয়েছেন বিচারক।

- Advertisement -

ওই মহিলার অভিযোগ, তাঁকে গ্রেপ্তার করে রাখা হয়েছিল লকআপে। ৯ মে আটক করা হলেও ২১ মে পর্যন্ত তাঁকে আদালতে হাজির করা হয়নি। তিন কনস্টেবল ছাড়াও থানার স্টেশন ইনচার্জ এবং এসডিপিও তাঁকে ধর্ষণ করেছিল। জেলের ওয়ার্ডেনকে সব ঘটনা জানানোর পরেও মহিলার অভিযোগে কান দেননি কারা বিভাগের কর্তারা। জেল পরিদর্শক দলের সদস্য আইনজীবী সতীশ মিশ্র, রেওয়ার জেলা বার অ্যাসোসিয়েনের সভাপতি রাজেন্দ্র পান্ডে নির্যাতিতার পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন।