লখনউ, ৯ জুলাইঃ সোমবার সকালে আদালতে পেশ করার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে জেলের মধ্যেই গুলি করে খুন করা হল প্রেম প্রকাশ সিং ওরফে কুখ্যাত গ্যাংস্টার মুন্না বজরঙ্গীকে(৫১)। উত্তরপ্রদেশের বাঘপত জেলে সকাল ৬.৩০ নাগাদ গুলি করা হয় তাকে।

মুন্না বজরঙ্গীর প্রতিদ্বন্দ্বী গ্যাংস্টার সুনীল রাঠিই গুলি করে তাকে। ১০ বার গুলি করার পর দেহটি একটি নর্দমায় ফেলে দেয় সুনীল। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। রবিবারই মুন্নাকে ঝাঁসি থেকে বাঘপত জেলে পাঠানো হয়।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘জেলের মধ্যে এই ধরনের ঘটনা অত্যন্ত গুরুতর। কারাধ্যক্ষকে সাসপেন্ড করা এবং বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। তদন্তের পর এই ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ সূত্রের খবর, জেলের নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগে উপ-কারাধ্যক্ষকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে।

স্ত্রী সীমা সিংহ গত ২৯ জুন সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করেন, ‘আমি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে বলতে চাই, আমার স্বামীর জীবনের ঝুঁকি আছে। তাঁকে ভুয়ো সংঘর্ষে হত্যা করার চক্রান্ত চলছে।’ এর কিছুদিনের মধ্যেই জেলে মুন্না খুন হওয়ায় উত্তরপ্রদেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা।

২০০৯-এর অক্টোবরে শার্প শুটার মুন্না বজরঙ্গীকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। বিজেপি নেতা কৃষ্ণনানন্দ রাই-সহ ৪০টিরও বেশি খুনের মামলা রয়েছে তারা নামে।