রাজ্য সড়কের ধারে আবর্জনায় ছড়াচ্ছে দূষণ, বাড়ছে ক্ষোভ

243

জামালদহ: রাজ্য সড়কের দু’পাশ ভরে যাচ্ছে বাজারের নোংরা আবর্জনা, জঞ্জাল ও থার্মোকলে। ফলে মারাত্মকভাবে ছড়াচ্ছে দূষণ। এতে পথ চলতি মানুষজন সমস্যায় পড়ছেন।

কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ ব্লকের জামালদহ বাজারের গা ঘেঁষে চলে গিয়েছে ১২-এ রাজ্য সড়ক। ব্যস্ততম সেই সড়কের পাশেই স্তূপাকারে জমছে বাজারের নোংরা আবর্জনা। এই নিয়ে এলাকার মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। তাঁদের বক্তব্য, রাস্তার দুপাশ যেন ডাম্পিং গ্রাউন্ডে পরিণত হয়েছে। দুর্গন্ধে ওই পথে চলাচল করাই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। অবিলম্বে রাস্তার দুপাশ সাফাই করার দাবি তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এ ব্যাপারে পঞ্চায়েত ও প্রশাসনকে জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি বলে বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন।

- Advertisement -

ভারত ও বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জামালদহ বাজারের উপর কয়েক হাজার মানুষ নির্ভরশীল। রোজ এই বাজারে প্রচুর মানুষের ভিড় জমে। প্রতি সপ্তাহে মঙ্গল ও শুক্রবার এখানে সাপ্তাহিক হাট বসে। হাট বারে ভিড় আরও বাড়ে। রোজ এত মানুষের সমাগম হলেও জামালদহ বাজারের পরিকাঠামোগত উন্নয়ন সেভাবে হয়নি। নেই কোনও ব্যবহার যোগ্য শৌচালয়,পানীয় জলের ব্যবস্থা। নিয়মিত খাজনা আদায় করা হলেও বাজার পরিষ্কার করার কোনও বালাই নেই। নেই নোংরা ফেলার জন্য নির্দিষ্ট কোনও ডাম্পিং গ্রাউন্ড।

বাজারে অলিগলি সহ যত্রতত্র জমে থাকে আবর্জনার স্তূপ। সেই সব জঞ্জালের বেশিরভাগই পরবর্তীতে রাজ্য সড়কের ধারে নিয়ে গিয়ে ফেলা হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দা কানাই বর্মন, মৃন্ময় ঘোষ, বিদেশ সিংহ প্রমুখ জানিয়েছেন, জামালদহের পশ্চিমপাড়া ও বনাঞ্চল সংলগ্ন এলাকায় রাজ্য সড়কের পাশে নোংরা আবর্জনা ফেলার জন্য বেশি করে ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে আশপাশে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ।

এ ব্যাপারে জামালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান গীতা বর্মন জানিয়েছেন,’ যত্রতত্র আবর্জনা ফেলা উচিত নয়। এতে পরিবেশ দূষিত হয়। এ ব্যাপারে সাধারণ বাসিন্দাদেরও সচেতন থাকতে হবে। জামালদহে রাজ্য সড়কের পাশে আর যাতে কেউ জঞ্জাল না ফেলে, সেই বিষয়ে গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে প্রচার করা হবে।’