বেলের হ্যাটট্রিকে জয়ী টটেনহ্যাম

লন্ডন : গ্যারেথ বেলের হ্যাটট্রিকে ভর করে শেফিল্ড ইউনাইটেডকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিন টটেনহ্যাম হটস্পার। দলের হয়ে অন্য গোলটি করেন সন হিউং-মিন। ৫১ মিনিটে সনের একটি গোল ভিএআর বাতিল না করলে টটেনহ্যামের জয়ের ব্যবধান আরও বাড়ত। ৩৪ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট পেয়েছে লন্ডনের ক্লাবটি।

২০১২ সালের ডিসেম্বরের পর প্রথমবার প্রিমিয়ার লিগে হ্যাটট্রিক করলেন বেল। সবমিলিয়ে নিজের শেষ হ্যাটট্রিক করেছিলেন ২০১৮ সালে ক্লাব বিশ্বকাপে। সেবার সেমিফাইনালে কাশিমা অ্যান্টলার্সের জালে তিনবার বল জড়িয়েছিলেন তিনি। চলতি মরশুমে লিগ টেবিলের তলায় থাকা শেফিল্ডের বিরুদ্ধে ৩৬, ৬১ ও ৬৯ মিনিটে গোলগুলি করেন ওয়েলস উইজার্ড। ৭৭ মিনিটে চতুর্থ গোলটি আসে সনের পা থেকে। টটেনহ্যামের হয়ে এমন পারফরমেন্সের জন্য বহু সমর্থকই চাইছেন, ক্লাবেই থাকুন বেল। হ্যাটট্রিক নিয়ে ওয়েলসের এই তারকার বক্তব্য, সুযোগ কাজে লাগাতে পেরে খুশি। আমি ম্যাচ খেলতে চেয়েছিলাম। সেই জন্য আমি খুশি এবং খুশি থাকলে আমি ভালো খেলি। মরশুমের মাঝে লোনে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে টটেনহ্যামে যোগ দিয়েছেন বেল।

- Advertisement -

অন্যদিকে, ইউরোপিয়ান সুপার লিগে সম্মতি জানিয়ে সমর্থকদের রোষের মুখে পড়েছে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মালিক গ্লেজার পরিবার। রবিবার তাদের বিরুদ্ধে হওয়া বিক্ষোভের জেরে লিভারপুলের বিরুদ্ধে ক্লাবের ম্যাচ পিছিয়ে দিতে হয়ছে। তবে ঘুরিয়ে বিক্ষোভকারীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এক অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে তিনি মন্তব্য করেন, আমি এভাবে বিক্ষোভ দেখানোর সমর্থক না। তবে অন্যদিকে, আমি মানুষের আবেগের দিকটাও বুঝি। এই ধরণের বিক্ষোভ থেকে স্পষ্ট, এই দেশের মানুষ বা সরকার ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ধারণাকে সমর্থন করে না। ইএসএল ঘোষণার পরেই এর বিরোধীতা করেন জনসন।