এনআরসি তালিকায় অযোগ্য ব্যক্তিদের নাম, হলফনামা চাইল হাইকোর্ট

491

গুয়াহাটি: এনআরসি তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করার আবেদন করে প্রায় ৩ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ। তাদের মধ্যে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়ে ৩১ অগস্ট ২০১৯ প্রকাশিত তালিকা থেকে। কিন্তু অগস্টে প্রকাশিত অসমের চূড়ান্ত এনআরসি তালিকায় রয়েছে কিছু অযোগ্য ব্যক্তির নাম। ওই তালিকায় তাঁদের নাম কীভাবে অন্তর্ভুক্ত হল এই প্রশ্নের জবাব চেয়ে অসমের এনআরসি কোঅর্ডিনেটরকে একটি বিস্তৃত হলফনামা দাখিল করতে নির্দেশ দিল গুয়াহাটি হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, নলবাড়ি জেলার মুকালমুয়ার বাসিন্দা রহিমা বেগম। তাঁর একটি আবেদনের ভিত্তিতে এই মামলার শুনানি চলছে আদালতে। এনআরসি তালিকায় তাঁকে বিদেশি ঘোষণা করা হয়েছে। এই অভিযোগ তুলে বিদেশি ট্রাইব্যুনালের ২০১৯ সালের আদেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু ওই আদেশ থাকা সত্ত্বেও রহিমা বেগমের নাম রয়েছে এনআরসি তালিকায়। যা অবৈধ বিদেশিদের উৎখাত করার লক্ষ্যে তৈরি করা হয়েছে। বিচারপতি মনোজিত ভুঁইয়া ও বিচারপতি সৌমিত্র সাইকিয়ার ডিভিশন বেঞ্চ এনআরসি–র কোঅর্ডিনেটর হিতেশ দেব শর্মাকে এই মামলার পরবর্তী শুনানির আগে তিন সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

- Advertisement -

হাইকোর্ট সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতির রেকর্ড ও এনআরসি তালিকায় অবৈধভাবে যাঁদের নাম রয়েছে সেই তথ্য জানতে আদালতের নির্দেশে, অসমে এনআরসি–র রাজ্য কোঅর্ডিনেটরকে একটি বিস্তৃত হলফনামা দাখিল করতে হবে।