তিনদিনের ধর্না শেষে আমরণ অনশনে রাজ্য তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক

206

আসানসোল: স্থানীয় বেকার যুবকদের কাজের দাবিতে আসানসোলের কুলটির কল্যানেশ্বরীর পিএইচই দপ্তরের সামনে ধর্না শুরু করেন রাজ্য তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তিনদিন ধরে চলা ধর্নার পরেও ঠিকাদার সংস্থা ও পিএইচই দপ্তরের তরফে কোনও সদুত্তর না মেলায় মঙ্গলবার স্থানীয় যুবক সুরোজ বাউরি ও সুব্রত বাউরিকে সঙ্গে নিয়ে আমরণ অনশনে বসলেন রাজ্য তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

আমরণ অনশনকে সমর্থন জানিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছোন কুলটি ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিমান আচার্য। অনশনকারীদের মনোবল বৃদ্ধি করার পাশাপাশি এই আন্দোলনে তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি। এবিষয়ে বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘বেকার যুবকদের কাজের দাবিতে আমাদের আন্দোলনের প্রথম পর্যায়ে আমরা তিনদিন ধরে ধর্নায় বসেছিলাম। কিন্তু পিএইচই বা ঠিকাদার কোনও তরফেই উত্তর না মেলায় আমরা আমরণ অনশনে বসেছি। যতদিন আমাদের দাবি মানা না হচ্ছে ততদিন অনশন চলবে।তাতে যদি আমাদের প্রাণ চলে যায় তো যাবে। তাও এই আন্দোলন জারি থাকবে। আমরা রাজ্যে ক্ষমতায় থেকেও কোনও ঝামেলা না করে গান্ধীজীর দেখানো পথে শান্তভাবে আন্দোলন গড়ে তুলেছি।’

- Advertisement -

এবিষয়ে তৃনমুল কংগ্রেসের কুলটি ব্লকের সভাপতি বিমান আচার্য বলেন, ‘স্থানীয় বেকার যুবকদের কাজের স্বার্থে বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় লড়াই শুরু করেছে। আর আমি তাঁর এই লড়াইকে সমর্থন জানাই। আমি গত তিনদিন ধরে চলে আসা ধর্নাতে ছিলাম। তাদের আন্দোলনে আজ আছি, আর আগামী দিনেও থাকব।’

যদিও শাসকদলের যুব সংগঠনের রাজ্য নেতার দাবি নিয়ে পিএইচই দপ্তরের কোনও আধিকারিক কোন মন্তব্য করতে চাননি।