বাবা বিজেপি কর্মী, শংসাপত্র চাওয়ায় পঞ্চায়েত থেকে গলাধাক্কা মেয়েকে

260

বক্সিরহাট : বাবা বিজেপি কর্মী তাই আয়ের শংসাপত্র দিতে চাননি প্রধান। এমন অভিযোগ তুলে বান্ধবীদের নিয়ে পথ অবরোধ করল বারকোদ়ালী হাইস্কুলের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী। বুধবার বক্সিরহাট থানার বারকোদালি ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘটনা। ওই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বাসিন্দা তথা বারকোদ়ালী হাইস্কুলের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী অর্পিতা রাভার অভিযোগ, এদিন দুপুরে বাবার ইনকাম সার্টিফিকেট নিতে গ্রাম পঞ্চায়েত দপ্তরে গেলে সেখানে উপস্থিত কতিপয় তৃণমূলের নেতাকর্মী ঘাড় ধাক্কা দিয়ে সেখান থেকে বের করে দেয় তাকে।

এরপরই তারা ভারেয়া চৌপথিতে রাস্তার উপর বসে পথ অবরোধ করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় বক্সিরহাট থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ সকলকে বুঝিয়েও অবরোধ তুলতে ব্যর্থ হয় পুলিশ। বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের দাবি, যারা তাদের গায়ে হাত দিয়েছে ও ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দিয়েছে তাদের শাস্তি দিতে হবে এবং প্রধান কে এসে তাদের হাতে শংসাপত্র তুলে দিতে হবে। যদিও গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মীনাক্ষী সরকার বর্মন জানান, এরকম কোনও ঘটনাই ঘটেনি। গ্রাম পঞ্চায়েতে রাজনীতির রঙ দেখে কাউকে শংসাপত্র দেওয়া হয় না।

- Advertisement -

তৃণমূলের বারকোদা়লী ২ অঞ্চল সভাপতি সরজিত রাভা ও দলের তুফানগঞ্জ ২ ব্লক সাধারণ সম্পাদক সুরেশ বর্মন জানান, তৃণমূলের কেউ গ্রাম পঞ্চায়েত দপ্তরের বসে এই কাজ করেনি। পেছন থেকে বিজেপির উস্কানিতেই ছাত্রীরা মিথ্যে অভিযোগ তুলে অবরোধ করেছে। এ ব্যাপারে বিজেপির তুফানগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রিক সংযোজক উৎপল দাস জানান, আজকের এই ঘটনা গণতন্ত্রের পক্ষে লজ্জার।