আগুনে পুড়ে মৃত্যু যুবতীর

সাজাহান আলি, কুমারগঞ্জ: বাড়ির বাকি সদস্যদের অনুপস্থিতিতে আগুনে পুড়ে মৃত্যু হল এক আদিবাসী যুবতীর। রবিবার কুমারগঞ্জ থানার ৩ নম্বর জাখিরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভোলানাথপুর আদিবাসী পাড়ার ঘটনা। মৃত যুবতীর নাম মামুনি হাঁসদা (২০)। পরিবারের দাবি, মৃত যুবতী দীর্ঘদিন অবসাদে ভুগছিলেন। এদিন বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবারের তরফে অনুমান করা হচ্ছে। খবর পেয়ে বিকালে কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত যুবতীরা তিন বোন। তাঁদের মধ্যে মামুনি ছিলেন মেজ মেয়ে। মামুনি বাদে বাকি দু‘বোনের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। দুই বোনের বিয়ের পর থেকে মৃগরোগে আক্রান্ত মামুনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন বলে পরিবারের দাবি। সে এর আগেও একবার পুকুরে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন।
এদিন ভোলানাথপুর গ্রামে এক ব্যাক্তির মৃত্যু হয়। মামুনিকে বাড়িতে রেখে সেখানেই গিয়েছিলেন তাঁর বাবা-মা। বাবা-মা বাড়িতে থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরপরই সে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে বলে পরিবারের বক্তব্য।

- Advertisement -

কুমারগঞ্জ থানার ওসি টাসি থিরিং শেরপা বলেন, ওই যুবতীর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলাও দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান।