সোনারপুরে ‘ফেসবুক লাইভ’-এ আত্মহত্যা কিশোরীর

161

সোনারপুর, ১১ জুনঃ ফেসবুকে লাইভ করে আত্মঘাতী হল এক কিশোরী। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সোনারপুরের বৈদ্যপাড়ার ঘটনা। বছর ১৭-এর ওই ছাত্রী সোনারপুর কামরাবাদ স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সোনারপুরেরই ঘাসিয়াড়ার বাসিন্দা এক যুবকের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল তার। গতকাল দুপুরে এক বান্ধবীর ফোন পেয়ে তাড়াহুড়ো করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় মৌসুমি। সন্ধ্যা ৬ টা নাগাদ ফেরে। এরপর থেকে আর কারোর সঙ্গে সেভাবে কথা বলেনি। তার মা আয়ার কাজ করেন। তিনি সন্ধ্যাবেলায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। কিশোরীর বাবা ও ভাই কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন। তাই মা বেরিয়ে যাওয়ার পর বাড়িতে একাই ছিল সে।

- Advertisement -

কিছুক্ষণ পর পাড়ার একটি জলসাতে যায়। সেখান থেকে ফিরে এসে রাতের খাবার খেয়ে শুয়ে পড়ে। কিন্তু, সকাল আটটা বেজে গেলেও কোনো সাড়াশব্দ মেলেনি তার। এরপর অনেক ডাকাডাকি করেও কাজ না হলে জানালা দিয়ে ঘরে ভেতরে তার মা দেখতে পান ঘরের কড়িকাঠে ওড়নায় ফাঁস লাগিয়ে দেহ ঝুলছে।

দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকার পরও মোবাইলে ফেসবুক লাইভ অন করা ছিল। সেখানেই তার আত্মহত্যার ভিডিও দেখতে পায় পুলিশ এবং পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার আগে ওই যুবকের সঙ্গে সোশ্যাল সাইটে তার দীর্ঘক্ষণ কথা হয় বলে জানা গিয়েছে। যুবক বিষয়টি জানলেও কেন কাউকে কিছু জানায়নি তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এই ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে ওই যুবকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।