ফাইনাল বাতিল হলে দুই দলকে সোনা

ছবি: সংগৃহীত।

টোকিও : টোকিও অলিম্পিককে ঘিরে অনেক যদি-কিন্তু। সেই দ্বিধাদ্বন্দ্বের মধ্যেই নতুন ঘোষণা আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের (এফআইএইচ)। টোকিও সহ জাপান জুড়ে কোভিড সংক্রমণ নিয়ে উদ্বিগ্ন এফআইএইচের কর্তারা। করোনার কারণে ফাইনাল ভেস্তে গেলে সেক্ষেত্রে ফাইনালিস্ট দুই দলকে যুগ্ম সোনাজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হবে জানিয়েছে এফআইএইচ কর্তৃপক্ষ।

এবারের অলিম্পিকের আসর অন্যান্য সাধারণ প্রতিযোগিতার মঞ্চ থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন, জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের সিইও থিয়েরি উইল। করোনা সংক্রমণের কথা ভেবে নানা বিধি চালু করছে এফআইএইচ। তারা জানিয়েছে, দলে একাধিক কোভিড সংক্রমণ ধরা পড়লেও টুর্নামেন্ট থেকে সেই টিমের বাদ পড়ার কোনও আশঙ্কা থাকছে না। করোনা রিপোর্ট খতিয়ে দেখে সেক্ষেত্রে বাকিদের খেলার ছাড়পত্র দেওয়া হবে। তবে কোভিডের জেরে অলিম্পিক থেকে নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট দল ও সেই দেশের হকি ফেডারেশনের ওপরে ছেড়েছেন সিইও উইল। ফাইনালে উভয় দল যদি করোনা সংক্রমণের জেরে টিম নামাতে অপারগ হয়, সেক্ষেত্রে স্পোর্টস স্পেসিফিক রেগুলেশন (এসএসআর) মেনে ফাইনালিস্ট দুই দলকে যুগ্মজয়ী ঘোষণা করে সোনার পদক তুলে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

- Advertisement -

অন্যদিকে, ৮০ দিনের প্রস্তুতি পর্ব সেরে জাগ্রেব ছাড়ল ভারতীয় শুটিং দল। আমস্টারডাম হয়ে টোকিও-তে অলিম্পিকের আসরে যোগ দেবেন মনু ভাকেররা। তবে দলের সঙ্গে আমস্টারডাম আসেননি কোচ পাভেল স্মিরনভ। আমস্টারডামে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন দুই স্কিট শুটার মিরাজ আহমেদ খান ও অঙ্গদবীর সিং। দুজনেই অলিম্পিকের চূড়ান্ত প্রস্তুতি সেরেছেন ইতালিতে। জাগ্রেভ ছাড়ার আগে ভাকেরদের সংবর্ধিত করা হয় ক্রোয়েশিয়ার শুটিং ফেডারেশনের তরফে। ৫০ দিনের প্রস্তুতি সেরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট লুইস থেকে টোকিও-র উদ্দেশে রওনা দিলেন ভারোত্তোলক সেইখোম মীরাবাই চানু।